চট্টগ্রাম, , বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮

খোলা জায়গায় চমেক হাসপাতালের চিকিৎসা বর্জ্য

প্রকাশ: ২০১৮-০১-২৮ ১৩:০৯:৪২ || আপডেট: ২০১৮-০১-২৯ ১০:৪৫:২৩

সিটিজি টাইমস প্রতিবেদক

হাসপাতাল সংলগ্ন খোলা জায়গায় চিকিৎসাবর্জ্য ফেলছে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের কর্তৃপক্ষ। ফলে চিকিৎসাধীন রোগী ও সংশ্লিষ্টদের স্বাস্থ্যঝুঁকির আশংকা করেছেন বিশেষজ্ঞরা।
জানা যায়, বেশ কয়েকবছর ধরে হাসপাতাল সংলগ্ন বাগান বাড়ি এলাকায় ফেলা হচ্ছে বর্জ্যগুলো। যার পাশে রয়েছে হাসপাতালের ওয়ার্ডসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা।

তবে কর্তৃপক্ষ বলছেন, আধুনিক বর্জ্য শোধনাগার না থাকায় খোলা জায়গায় বর্জ্য ফেলতে হয়। তবে বর্জ্যগুলা দ্রুত সময়ের মধ্যে সরিয়ে ফেলা হচ্ছে। এতে স্বাস্থ্য ঝুঁকির সম্ভাবনা নেই।
পরিবেশ অধিদপ্তর থেকে জানা গেছে, হাসপাতাল থেকে প্রায় যে বর্জ্য উৎপাদিত হয়, সেগুলো সংক্রামক বর্জ্য। এসব বর্জ্য বিনষ্ট অথবা শোধন করতে হয়।

চমেক হাসপাতালের ব্যাপারটি অবগত করা হলে পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মহানগরের পরিচালক আলতাফ হোসেন চৌধুরী সিটিজি টাইমসেক বলেন, এটি পরিবেশ ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা আইনের পরিপন্থী। কারণ এসব বর্জ্য থেকে রোগজীবাণু ছড়ায়।

‘আমার জানা মতে, চমেক হাসপাতালে আধুনিক বর্জ্য শোধনাগার নেই। তাই কর্তৃপক্ষ খোলা জায়গায় বর্জ্য ফেলছে। কিন্তু সেটি মারাত্মক ও পরিবেশের পরিপন্থী। আমরা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে ব্যাপারটি নিয়ে আলোচনা করবো। ’

অন্যদিকে চমেক হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মো. জালাল উদ্দিন সিটিজি টাইমসকে বলেন, বর্জ্য শোধনের জন্য ইনসাইনেরেটর প্রকল্পটি আমরা অনেকদিন ধরে করতে চেয়েছি। কিন্তু নানা কারণে সেটি সম্ভব হয়নি। এখন আমরা নতুন আরেকটি প্রকল্প হাতে নিয়েছি।

‘আমরা চেষ্টা করি বর্জ্যগুলো দ্রুত সরিয়ে নিতে। সেজন্য আলাদা জনবল নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তবে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি, একটি আধুনিক বর্জ্য শোধনাগার তৈরি করতে। যাতে স্থায়ী সমাধান হয়।”