চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ১৭ আগস্ট ২০১৮

চট্টগ্রাম জেলা ইজতেমা শুরু, ৪ স্তরের নিরাপত্তা

প্রকাশ: ২০১৮-০১-২৫ ২২:৩৪:১১ || আপডেট: ২০১৮-০১-২৬ ১৭:২৪:৩৬

হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি

ঢাকার বাইরে দ্বিতীয় বারের মতো বন্দর নগরীর প্রবেশদ্বার হাটহাজারী উপজেলায় শুরু হচ্ছে জেলা ইজতেমা।

শুক্রবার ভোরে আমবয়ানের মধ্য দিয়ে ইজতেমার আনুষ্ঠানিকতা শুরু কথা রয়েছে।

ইজতেমা উপলক্ষে চার স্থরের নিরাপত্তা বলয় থাকবে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

তাবলিগ জামাতের এই আয়োজনে উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের চারিয়া গ্রামে তিন দিনব্যাপী (২৬, ২৭ ও ২৮ জানুয়ারি) এ ইজতেমায় হাটহাজারীসহ চট্টগ্রামের ১৪ উপজেলা, চট্টগ্রাম শহর ও কক্সবাজার জেলার ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের অংশ নেয়ার কথা রয়েছে। প্রায় ৭০ একর খোলা জায়গা জুড়ে গত এক মাস ধরে স্বেচ্ছায় কাজ করে করেছেন শত শত স্থানীয় এলাকাবাসী ও মুসল্লিরা।

বন্দর নগরী থেকে চট্টগ্রাম থেকে ২৫ কিলোমিটার দূরে এবং হাটহাজারী উপজেলা থেকে তিন কিলোমিটার দূরে ইজতেমা মাঠের অবস্থান।

আয়োজকেরা জানান, প্রায় দুই লক্ষাধিক মুসল্লির টানা তিন দিন ইজতেমার মূল মাঠে অবস্থানের ব্যবস্থা করা হয়েছে। তবে শুক্রবার ও রোববার বেশি মুসল্লি অংশ নিতে পারেন বলে ধারণা করছেন তারা।

ইজতেমার মূল সমন্বয়ক হাটহাজারী মাদ্রসার সিনিয়র শিক্ষক মুফতি জসিম উদ্দিন বলেন, ইজতেমার সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। তিন দিন ব্যাপী চট্টগ্রাম জেলা ইজতেমা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার ক্ষেত্রে সকরের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

ইজতেমা ময়দানে তিন স্তরের নিরাপত্তা বলয় তৈরি করা হয়েছে বলে এমনটা জানিয়ে হাটহাজারী সার্কেল এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ আল মাসুম জানান, ইজতেমা উপলক্ষে চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি সড়কে গাড়ি চলাচল নিয়ন্ত্রণই বড় চ্যালেঞ্জ। তবে মুসল্লিদের নির্বিঘ্নে যাতায়াতের স্বার্থে চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি সড়কে ইট, কাঠবাহী ট্রাকসহ ভারী যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এছাড়া আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রনে রাখতে মাঠে থাকতে দেড় সহস্রাধিক পুলিশ। সাদা পোশাকে গোয়ন্দা সংস্থার বিশেষ টিমসহ থাকবে মোবাইল টিম ও টহল টিম। তাছাড়া ৫০ স্পটে বসানো হয়েছে সিসিটিভি ক্যামেরা।

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে ইজতেমার মাঠ নজরদারিতে রাখতে বেশ কয়েকটি স্পটে বসানো হয়েছে পর্যবেক্ষণ টাওয়ার। মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে তল্লাশির ব্যবস্থাও রয়েছে বলে জানা গেছে।