চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ১৭ আগস্ট ২০১৮

সাতকানিয়ায় ট্রিপল মার্ডার, কাঞ্চনার চেয়ারম্যানসহ ১৫ জনের কারাদণ্ড

প্রকাশ: ২০১৮-০১-২৪ ১৭:০৮:২৯ || আপডেট: ২০১৮-০১-২৪ ১৭:০৮:২৯

২৬ বছর আগে সাতকানিয়ায় চাঞ্চল্যকর ট্রিপল মার্ডার ‍মামলায় একজন একজন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানসহ ১৫ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

দণ্ডিত ১৫ জনের মধ্যে চারজনকে যাবজ্জীবন সাজা দিয়েছেন আদালত। এরা হলেন, নজির আহমদ, আব্দুস শুক্কুর, আজম খান ও জামাল। ফিরোজ নামে এক আসামিকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সাতকানিয়া উপজেলার কাঞ্চনা ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান রমজান আলীসহ ১০ জনকে ৬ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন। বাকি নয়জন হলেন, সাহাব মিয়া, সিরাজুল হক, নূরুল আলম, ইয়াকুব, মহসিন, মোজাহের, লোকমান, ইমাম হোসেন ও ইলিয়াছ।

বুধবার (২৪ জানুয়ারি) চট্টগ্রামের জননিরাপত্তা ট্রাইব্যুনালের বিচারক বিশেষ জজ সৈয়দা হোসনে আরা এই রায় দিয়েছেন। ট্রাইব্যুনালের পিপি জাহাঙ্গীর আলম রায়ের বিষয়টি জানিয়ে বলেন, ঘটনার এক সপ্তাহ আগে সিদ্দিক বিয়ে করেছিলেন। তার স্ত্রীসহ ১৩ জন মামলায় সাক্ষ্য দিয়েছেন। এছাড়া তিনজন আসামি ঘটনার দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন।

পিপি জানান, ইউপি চেয়ারম্যানসহ ১০ জন আসামি পলাতক আছেন। নজির আহমদ নামে একজন মারা গেছেন। বাকি চারজন রায় ঘোষণার সময় হাজির ছিলেন।

আদালত সূত্রে ‍জানা গেছে, ১৯৯২ সালে সাতকানিয়া উপজেলার কাঞ্চনা ইউনিয়নের উত্তর কাঞ্চনা গ্রামে একটি ‍বাড়িতে ডাকাতির জন্য যায় একদল দুর্বৃত্ত। ঘরে ঢোকার পর তাদের প্রতিরোধের চেষ্টা করলে ডাকাতরা এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়তে থাকে। এতে ওই পরিবারের সদস্য মোহাম্মদ মিয়া ও তার স্ত্রী সাজেদা খাতুন এবং ছোট ভাই সিদ্দিক মিয়া নিহত হন। এই ঘটনায় পরিবারের আরেক সদস্য জাফর আহমদ বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেন।