চট্টগ্রাম, , সোমবার, ২২ অক্টোবর ২০১৮

বন্দরে বিশৃংখলাকারীদের বিচারের আওতায় আনা উচিত: মেয়র নাছির

প্রকাশ: ২০১৭-১১-১৩ ২১:০০:৩০ || আপডেট: ২০১৭-১১-১৩ ২১:০৭:৩২

যারা সরকারে থেকে দেশের সর্বাধিক লাভজনক প্রতিষ্ঠান চট্টগ্রাম বন্দরকে বন্ধের হুমকি দেয় তারা রাষ্ট্রবিরোধী লোক উল্লেখ করে নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম আলহাজ্ব নাছির উদ্দীন বলেন, নিজের স্বার্থকে পূঁজি করে এই ধরনের হুমকি ও বিশৃংখলাকারীদের রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থায় বিচারের আওতায় আনা উচিত।

আজ সোমবার নগরীর বন্দর থানাধীন নিমতলা বিমান চত্বরে চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহারকারী শ্রমিক কর্মচারী লীগের (সিবিএ) বিশেষ সাধারণ সভায় সিটি মেয়র আ জ ম আলহাজ্ব নাছির উদ্দীন তিনি এ সব কথা বলেন।

এদিকে, চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহারকারী শ্রমিক কর্মচারী লীগের (সিবিএ) বিশেষ সাধারণ সভায় উত্থাপিত সব দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

শ্রমিকদের দাবির মধ্যে রয়েছে নৌমন্ত্রীর নির্দেশনা, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের বোর্ড সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী উইন্সম্যানদের বন্দরের শ্রম শাখায় অন্তর্ভুক্তি, কর্মক্ষেত্রে আঘাত পাওয়া শ্রমিক কর্মচারীদের চিকিৎসা সুবিধা ও চিকিৎসাকালীন দৈনিক জীবিকাভাতা প্রদান, গ্রুপ ইন্স্যুরেন্স বাস্তবায়ন, জেনারেল কার্গো বার্থের শ্রমিকদের জন্য টনেজ ভিত্তিতে মজুরি নির্ধারণ, দুই সেট করে গ্রীষ্ম, বর্ষা ও শীতকালীন পোশাক প্রদান ইত্যাদি।

সংগঠনের সভাপতি মোঃ মীর নওশাদ আলী’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় জাতীয় শ্রমিক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শফর আলী। সভায় বক্তব্য দেন সংগঠনের কার্যকরী সভাপতি মো. কামাল, সিনিয়র সহসভাপতি মো. হাসান, মো. নুরুল আফছার, নুরুল আমিন ভূঞা, দুলাল মিয়া প্রমুখ।

শ্রমিকদের দাবির মধ্যে রয়েছে নৌমন্ত্রীর নির্দেশনা, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের বোর্ড সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী উইন্সম্যানদের বন্দরের শ্রম শাখায় অন্তর্ভুক্তি, কর্মক্ষেত্রে আঘাত পাওয়া শ্রমিক কর্মচারীদের চিকিৎসা সুবিধা ও চিকিৎসাকালীন দৈনিক জীবিকাভাতা প্রদান, গ্রুপ ইন্স্যুরেন্স বাস্তবায়ন, জেনারেল কার্গো বার্থের শ্রমিকদের জন্য টনেজ ভিত্তিতে মজুরি নির্ধারণ, দুই সেট করে গ্রীষ্ম, বর্ষা ও শীতকালীন পোশাক প্রদান ইত্যাদি।

সভায় বিপুল সংখ্যক বন্দর ব্যবহারকারী শ্রমিক কর্মচারী, শ্রমিক জনতা এবং দলীয় নেতা কর্মী উপস্থিত ছিলেন।