চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ২২ নভেম্বর ২০১৮

রোহিঙ্গাদের ত্রাণ দিয়ে ফেরা হলো না ৫ ব্যবসায়ীর

প্রকাশ: ২০১৭-১০-৩০ ১৭:১৫:২১ || আপডেট: ২০১৭-১০-৩০ ১৭:১৫:২১

রোহিঙ্গাদের ত্রাণ সহায়তা দিতে বৃহস্পতিবার রাতে টেকনাফ যান সিলেটের বিয়ানীবাজারের একদল ব্যবসায়ী। যথারীতি সেখানে ত্রাণ বিতরণও করেন তারা। তবে ফেরার পথে এক সড়ক দুর্ঘটনায় এই দলের ৫ জন ও মাইক্রোবাস চালকের মৃত্যু হয়।

নিহতরা হলেন- বিয়ানীবাজারের মাথিউরা গ্রামের ব্যবসায়ী আবদুল করিম, একই উপজেলার ছোট দেশের খায়রুল বাশার খয়ের, শ্রীধরা গ্রামের জুবের আহমদ, কাকরদিয়া গ্রামের ইকবাল হোসেন, কসবার বাবুল আহমদ ও মাইক্রোবাস চালক বাবুল হোসেন। তারা সকলেই উপজেলার প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী।

সোমবার (৩০ অক্টোবর) সকালে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নরসিংদীর মাধবদির কান্দাইল বাসস্টেশন এলাকায় যাত্রীবাহী বাসের সাথে মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত হন তারা। এছাড়া আরো দুজন আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

নিহতদের সহপাঠী ও সংবাদকর্মী মাহমুদ হোসেন জানান, রোহিঙ্গাদের ত্রাণ দিতে বৃহস্পতিবার রাতে তারা সিলেট থেকে কক্সবাজারে যায়। সেখানে শুক্র ও শনিবার ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করে। এরপর রবিবার কক্সবাজার ঘোরাফেরা করে ওইদিন রাতেই সিলেটের উদ্দেশে মাইক্রোবাস নিয়ে রওনা হয়।

এদিকে, তরুণ এই ব্যবসায়ীদের মৃত্যুতে শোকে স্তব্ধ পুরো বিয়ানীবাজার। তাদের আকস্মিক মৃত্যু মেনে নিতে পারছেন না কেউ। সর্বত্র বিরাজ করছে শোকের ছায়া। বন্ধ রয়েছে বিয়ানীবাজারের অনেক দোকানপাট। অনেকে ছুটছেন নিহত ও আহতদের বাড়িতে। কিন্তু তাদের পরিবারকে শান্তনা দেওয়ার মত ভাষা যেন কারো জানা নেই।

সবার পরিচিত ও প্রিয় এই মানুষদের এমন মৃত্যুতে বিষাদের ছায়া সর্বত্র। যারা গিয়েছিলেন অসহায়দের সহায়তা করতে তাদের এমন মৃত্যুতে ভেঙে পড়েছেন তাদের পরিবার পরিজনসহ বন্ধুমহল।

মর্মান্তিক এই সড়ক দুর্ঘটনা ভাগ্যক্রমে বেঁচে যাওয়া ব্যবসায়ী হাফিজ উদ্দিন ও ব্যবসায়ী দেলওয়ার হোসেন কাতরাচ্ছেন হাসপাতালের বিছানায়। তাদের অবস্থায় গুরুতর। আর নিহতদের লাশ আনতে ইতোমধ্যে ঘটনাস্থলে পৌছেছে তাদের আত্মীয়-স্বজন। নিহতদের মরদেহ রাতেই বিয়ানীবাজার এসে পৌঁছাবে বলে জানা গেছে। এছাড়া আগামীকাল সকাল ১০টা বিয়ানীবাজারে তাদের নামাজের জানাযা অনুষ্ঠিত হবে পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে।

এদিকে, এ ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় হুইপ সেলিম উদ্দিন এমপি। এক শোক বার্তায় তিনি বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় একসাথে এতোজন তরুণের মর্মান্তিক মৃত্যু বিয়ানীবাজারে এটি প্রথম। যার কারণে ঘটনায় শোকে স্তব্ধ হয়ে পড়েছে পুরো বিয়ানীবাজার। এ মৃত্যু মেনে নেয়া খুব কষ্টের। তিনি শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা ও নিহতদের রুহের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।