চট্টগ্রাম, , বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮

আ’লীগ নেতা আটক: হাটহাজারীতে সড়কে ব্যারিকেড, যাত্রীদের দুর্ভোগ

প্রকাশ: ২০১৭-১০-২২ ১১:০৪:৫৫ || আপডেট: ২০১৭-১০-২২ ১১:০৪:৫৫

যুবলীগের এক নেতাকে গুলি করার পর আওয়ামী লীগ নেতা মঞ্জুরুল আলমকে আটক করেছে পুলিশ। মঞ্জুরুল আলম চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও আলোচিত পরিবহন নেতা।শনিবার (২১ অক্টোবর) গভীর রাত ১২ টার দিকে নগরীর আউটার স্টেডিয়াম সংলগ্ন অফিসার্স ক্লাবের সামনে থেকে তাকে আটক করা হয়েছে।

কোতয়ালী থানার ওসি জসিম উদ্দিন জানান, রাতে দু’জনই অফিসার্স ক্লাবে ছিলেন। সেখান থেকে বের হবার পর উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এর এক পর্যায়ে মঞ্জুরুল আলম পিস্তল বের করে জয়নালের পায়ে গুলি করে। এসময় পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মঞ্জুরুলকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।আহত জয়নালকে রাতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। অস্ত্রোপচার করে গুলি বের করা হয়েছে। আনোয়ারা উপজেলার বাসিন্দা জয়নাল দক্ষিণ জেলা যুবলীগ নেতা। তার ভাই মো. আলমগীর আনোয়ারা থেকে নির্বাচিত চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের সদস্য।

এদিকে, আওয়ামী লীগ নেতা মঞ্জুরুল আলমকে আটকের প্রতিবাদে হাটহাজারী বাসস্ট্যান্ড মোড়ে ব্যারিকেড দিয়েছে তার অনুসারীরা। রোববার (২২ অক্টোবর) সকাল সাড় নয়টার দিকে মঞ্জুরের অনুসারীরা রাস্তায় ব্যারিকেড দিলে দুপাশে যান চলাচল কার্যত বন্ধ হয়ে যায়। এর ফলে দুর্ভোগে পড়েন চট্টগ্রাম-নাজিরহাট-খাগড়াছড়ি, চট্টগ্রাম-রাউজান-রাঙামাটি রুটসহ নগরমুখী যাত্রীরা। আটকা পড়ে কয়েকশ যানবাহন।

হাটহাজারী থানার এসআই মো. খলিল  জানান, মঞ্জুরুল আলমের গ্রুপের লোকজন মোড়ের ২০ গজ দক্ষিণে ব্যারিকেড দিয়েছে। এতে তিন-চারটি বাস আটকা পড়েছে। আমরা ব্যারিকেড তোলার চেষ্টা করছি।

শনিবার (২১ অক্টোবর) গভীর রাত ১২ টার দিকে নগরীর আউটার স্টেডিয়াম সংলগ্ন অফিসার্স ক্লাবের সামনে থেকে মঞ্জুরুল আলমকে আটক করা হয়। জয়নাল নামের এক যুবলীগ নেতাকে গুলি করার অপরাধে তাকে আটক করে কোতোয়ালি থানা পুলিশ।