চট্টগ্রাম, , শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮

দশ হাজার রোহিঙ্গাদের চিকিৎসাসেবা দিলো কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি

প্রকাশ: ২০১৭-১০-২০ ১৭:৩২:১৩ || আপডেট: ২০১৭-১০-২০ ১৭:৩২:১৩

“মানব সেবাই পরম ধর্ম এবং মানুষ মানুষের জন্য এই উপলব্ধিকে পুঁজি করে ১০হাজার রোহিঙ্গা শরনার্থীদের মাঝে চিকিৎসাসেবা, ওষুধ ও ত্রান সামগ্রী দিয়েছে কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি।

গত ১৯ শে অক্টোবর উখিয়ার বালুখালীর প্রত্যন্ত অঞ্চলে টিভি টাওয়ারের নিচে ক্যাম্প বসিয়ে প্রতিষ্টানটির পক্ষ হতে সেবাপ্রদান ও ত্রাণ বিতরণ করা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বোর্ড অব ট্রাস্টিজ এর গর্বিত সদস্য মাহবুবা সুলতানা শিউলী, কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনির্ভাসিটি’র প্রতিষ্ঠাতা শিক্ষানুরাগী লায়ন মোঃ মুজিবুর রহমান, দৈনিক সমকালের সিনিয়র সাব এডিটর নাসির উদ্দিন হায়দার, মাছরাঙা টেলিভিশনের কক্সবাজার প্রতিনিধি মি. সুনীল বড়ুয়া এবং সিবিআইইউ এর ২০ জন নিরলস সেচ্ছাসেবী শিক্ষার্থীসহ অনেকে।

শহরের একমাত্র এই ভার্সিটির অধীনে সুদক্ষ স্বেচ্ছাসেবী মেডিকেল টিমটি অসহায় রোহিঙ্গাদের মাঝে ১০,০০০ ( দশহাজার) জনকে নানা মেডিসিন, শিশুখাদ্য ও পড়ালেখার শিক্ষাসামগ্রীসহ অন্যান্য ত্রাণ বিতরণ করেন। এতে নির্যাতিত নিপীড়িত রোহিঙ্গাদের সাহায্যার্থে কিছুটা হলেও সহায়ক হবে বলে মনে করেন অনেকে।

ত্রাণ বিতরণকালে বোর্ড সদস্য মাহবুবা সুলতানা জানান,”হাতে অতিরিক্ত সময় থাকলে যোগ দিতে সকলকে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে। কেননা মানুষের বিপদে মানুষ এগিয়ে না আসলে আর কে আসবে। ওরা রোহিঙ্গা নয়,ওরা মানুষ, ওরা মুসলিম এমনটি দাবি করেন তিনি।

তিনি আরো জানান, ওরা প্রতিবাদী হতে পারেনি তবে প্রতিহিংসা আর নির্যাতনের শিকার। আমরা মানবিক হয়ে অন্তরকে বিশুদ্ধ করে দুহাত প্রসারিত করে সাহায্য নিয়ে”।

অন্যদিকে কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির মেডিকেল টিমটির সাথে স্বেচ্চায় কাজে সহযোগিতা করেছিলেন চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের সচিব সাব্বির ইকবাল সুমন, চট্টগ্রাম ডাবলমুরিং কে,বি, দুবাস সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা কহিনূর ইসলাম, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী রোকসানা জামান রুনা আপু, আমেরিকা প্রবাসী শিউলি আকতার ও মেজবা, এবং কানাডা প্রবাসী নাজনিন মনা সহ অনেকে।

এসব সংশ্লিষ্ট সকল সদস্যদের প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন ইউনিভার্সিটির বোর্ড সদস্য মাহবুবা সুলতানা শিউলী।