চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮

ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়, রিভিউ প্রস্তুতির জন্য ১১ সদস্যের কমিটি

প্রকাশ: ২০১৭-১০-২০ ১৬:৪৬:৩৬ || আপডেট: ২০১৭-১০-২০ ১৬:৪৬:৩৬

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিল করে সুপ্রিম কোর্টের দেয়া রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন (রিভিউ) প্রস্তুত করতে ১১ সদস্যের কমিটি করা হয়েছে।

ষোড়শ সংশোধনী বাতিল করে দেয়া রায়ের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ হিসেবে ‘রিভিউ’ প্রস্তুতির জন্য এ কমিটি কাজ করছে।

শুক্রবার (২০ অক্টোবর) অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘এটা অনেক বড় একটি রায়। এ রায়ের বিরুদ্ধে আমরা রিভিউর প্রস্তুতি নিচ্ছি। এ লক্ষ্যে ১১ সদস্যের একটি কমিটি করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আমিসহ ১১ জন আইন কর্মকর্তা এই কাজে যুক্ত রয়েছি। যার মধ্যে ২ জন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল ও ৮ জন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল রয়েছেন। আদালতের দৈনন্দিন কাজ শেষে প্রতিদিন সন্ধ্যা থেকে রাত প্রায় ৯টা ১০টা পর্যন্ত এ কমিটি অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়ের লাইব্রেরিতে বসে আইনি তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ ও বিশ্লেষণ সংক্রান্ত কাজগুলা করে যাচ্ছে।’সরকারের সিদ্ধান্ত এলেই যথাসময়ে রিভিউ করা হবে বলেও তিনি জানান।

কবে এ কমিটি গঠন করা হয়েছে জানতে চাইলে অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, ‘বেশ কয়েকদিন পূর্বেই এ কমিটি গঠন করা হয়েছে। নিয়মিত এ কমিটি কাজও করে যাচ্ছে।’

এর আগে ১২ অক্টোবর অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, ‘আমরা রায়ের সার্টিফাইড কপি (সত্যায়িত অনুলিপি) পেয়েছি।’ আইন অনুযায়ী, রায়ের সত্যায়িত অনুলিপি পাওয়ার একমাসের মধ্যে রিভিউ করতে হয়।

আইনমন্ত্রণালয় যেভাবে নির্দেশ দেবেন সে মোতাবেক কাজ শুরু হবে বলেও অ্যাটর্নি জেনারেল জানিয়েছিলেন।

ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের পূর্ণাঙ্গ কপি গত ১ আগস্ট প্রকাশ করে সুপ্রিম কোর্ট। এরপর গত ১৬ আগস্ট ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একরামুল হক টুটুল সাংবাদিকদের জানান, রায়ের পূর্ণাঙ্গ সার্টিফাইড কপি (সত্যায়িত) চেয়ে আবেদন করেছে রাষ্ট্রপক্ষ।

ষোড়শ সংশোধনী বাতিল করে দেয়া ৭৯৯ পৃষ্ঠার পূর্ণাঙ্গ রায়ের পর্যবেক্ষণে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা দেশের রাজনীতি, সামরিক শাসন, নির্বাচন কমিশন, দুর্নীতি, সুশাসন ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতাসহ বিভিন্ন বিষয়ে পর্যবেক্ষণ তুলে ধরেন।

এরপর গত ১০ আগস্ট সংবাদ সম্মেলন করে আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক। ১৮ আগস্ট রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) আবেদন করতে সরকার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানিয়েছিলেন তিনি। মন্ত্রী বলেছিলেন, ‘রায়ের সত্যায়িত কপির জন্য আবেদন করা হয়েছে। রায় ভালোভাবে পড়া হচ্ছে, পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেই রিভিউ আবেদন করা হবে।’