চট্টগ্রাম, , রোববার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮

আইনের ছাত্র বেআইনি ইয়াবা ব্যবসায়

প্রকাশ: ২০১৭-১০-১৮ ১৮:৫৩:১২ || আপডেট: ২০১৭-১০-১৯ ১৮:৪৪:০১

ইয়াবা ব্যবসায় যুক্ত চট্টগ্রামের একটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের শিক্ষার্থী তরিকুল ইসলাম তারেককে তার এক সহযোগিসহ গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ২০ হাজার ইয়াবা। মঙ্গলবার গভীর রাতে পাঁচলাইশ ও বায়েজিদ বোস্তামী থানা এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার তরিকুল ইসলাম তারেক (২০) সাউদার্ন ইউনিভার্সিটির এলএলবি ৭ম সেমিস্টারের ছাত্র। কক্সবাজারের টেকনাফের মহেশ খালীয়া পাড়ার নুরুল ইসলামের ছেলে তারেক। অন্যজন মো. রফিক ফেনীর সোনাগাজী থানার দক্ষিণচর এলাকার মো. ইসমাইলের ছেলে।

চট্টগ্রাম নগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (পশ্চিম) এএএম হুমায়ন কবির বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বায়েজিদ বোস্তামী থানার তৈয়বিয়া আবাসিক এলাকা থেকে ১০ হাজার ইয়াবাসহ তারেককে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পাঁচলাইশ থানার বিবির হাট এলাকা থেকে আরও ১০ হাজার রফিককে ইয়াবাসহ গ্রেফতার করা হয়।

এদিকে পুলিশ জানায়, আইনের ছাত্র তারেকের বাবা নুরুল ইসলামের টেকনাফে একটি পেট্রোল পাম্প, একটি অটোরাইস মিল, সারের ডিলার ও ১০/১২টি ভাড়া দোকান আছে। তারেকের বোনের সাথে বিয়ে হয় টেকনাফ মৌলভী পাড়ার মাদক ব্যবসায়ী ফজর আলীর। ফজর আলী ইয়াবাসহ গ্রেফতার হয়ে বর্তমানে কারাগারে আছে। ফজর আলীর ছোট ভাই মোহাম্মদ আলীও একজন কুখ্যাত ইয়াবা ব্যবসায়ী। তার নামেও একাধিক ইয়াবা মামলা আছে।

পুলিশ কর্মকর্তা এএএম হুমায়ন কবির বলেন, তারেক বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র হওয়ায় চট্টগ্রাম মহানগরের বিভিন্ন এলাকার উঠতি বয়সের ছেলেদের সহিত ভাল সম্পর্ক গড়ে তুলে। তারেক তার ছোট দুলাভাই ও তার আত্মীয় স্বজনের হাত ধরে ইয়াবা ব্যবসায় আসে। তারেক টেকনাফ হতে তাহার দুলাভাই ফজর আলী এবং নিজেই বিভিন্ন মাধ্যমে ইয়াবা চট্টগ্রামে এনে ছাত্রদের কাছে বিক্রি করে বলে স্বীকার করেছে।