চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ১৭ আগস্ট ২০১৮

শিক্ষানীতির মধ্য দিয়ে ভিশন ২০২১ বাস্তবায়িত হবে : মেয়র

প্রকাশ: ২০১৭-০৮-২২ ২০:৩১:৪৪ || আপডেট: ২০১৭-০৮-২২ ২০:৩১:৪৪

কাজেম আলী স্কুল এন্ড কলেজে সেমিনার

সিটি মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেছেন, প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে টিকে থাকার জন্য জ্ঞান এবং বিজ্ঞান চর্চার কোন বিকল্প নেই। এই দুটি ভিতকে অনুসরণ করে শিক্ষাদীক্ষা এবং জ্ঞানবিজ্ঞানে এগিয়ে যাচ্ছে কাজেম আলী স্কুল এন্ড কলেজ। অতীতের সকল দুর্নাম ঘুচিয়ে এ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা গত কয়েক বছরে পরীক্ষায় ভালো ফলাফল উপহার দিয়ে জেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে স্থান করে নিয়েছে। এটা অবশ্যই গৌরবের বিষয়।

সিটি মেয়র আরো বলেন, এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কোন রকম সন্ত্রাসী কর্মকান্ড কিংবা বহিরাগতদের আস্ফালন বরদাস্ত করা হবে না। যারা প্রতিষ্ঠানের শৃঙ্খলা বিরোধী কর্মকান্ড করবে তাদের অবশ্যই কঠোরহস্তে দমন করা হবে। এ ব্যাপারে আমি পরিচালনা কমিটির সভাপতিকে সর্বাত্মক সহযোগিতা দেবো। মেয়র বলেন, শিক্ষা ছাড়া দক্ষ ও সুশিক্ষিত জাতি গঠন সম্ভব নয়। কিন্তু দু:খের বিষয় স্বাধীনতা লাভের পর আমরা কোন শিক্ষানীতি পাইনি। ফলে পৃথিবীর উন্নত দেশগুলো থেকে আমরা পিছিয়ে ছিলাম। আনন্দের বিষয় আমাদের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা বিষয়টি অনুধাবন করে আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন এনেছেন। আমাদের আন্তর্জাতিকমানের একটি শিক্ষানীতি উপহার দিয়েছেন। এটা আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থায় মাইলফলক হিসেবে কাজ করবে এবং এই শিক্ষানীতির মধ্য দিয়ে আমাদের প্রজন্ম ভিশন ২০২১ বাস্তবায়িত হবে। একই সাথে ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ বিশ্বের উন্নত দেশের মর্যাদায় পৌঁছে যাবে।

কাজেম আলী স্কুল এন্ড কলেজ পরিচালনা পরিষদের সভাপতি ও দৈনিক বীর চট্টগ্রাম মঞ্চ সম্পাদক সৈয়দ উমর ফারুকের সভাপতিত্বে সেমিনারে অতিথি ছিলেন ১৬ নং চকবাজার ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাইয়্যেদ গোলাম হায়দার মিন্টু, জামালখান ওয়ার্ড কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন, ১১ নং দক্ষিণ কাট্টলী ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোরশেদ আকতার চৌধুরী, বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি হাজী মো. সাহাব উদ্দিন, জামালখান ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোরশেদ আলম, অভিভাবক সদস্য মো. মুজিবুর রহমান,মো. হাসান, মনোয়ারা বেগম, উপাধ্যক্ষ সানজিদা মোক্তার তানজিন, সহকারী প্রধান শিক্ষক লুৎফুর কবির ভূঁইয়া। শিক্ষিকা মুনমুন জাহানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন কাজেম আলী স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো. গিয়াস উদ্দিন। ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিশন বাস্তবায়নে আমরা প্রস্তুত’ শীর্ষক সেমিনারে কীনোট প্রেজেন্টেশন করেন একাদশ শ্রেণীর ছাত্র সাইমন আলম সাকিব এবং দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রী রাহাতুননেসা। শিক্ষার্থীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সাইদা আরবী, দেশাত্মবোধন গান পরিবেশন করেন দশম শ্রেণীর ছাত্র শাহরিয়ার এবং একাদশ শ্রেণীর ছাত্র ইমন শীল। আবৃত্তি করেন দশম শ্রেণীর ছাত্র আলতাবুর রহমান।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সিটি মেয়র শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, এই মাতৃভূমি বাংলাদেশ আমাদের। নিজের জীবনের মতো আমাদের দেশকে ভালোবাসতে হবে, দেশের মানুষকে ভালোবাসতে হবে। আমাদের আত্মকেন্দ্রিক চিন্তা পরিহার করে দেশের জন্য চিন্তা করতে হবে। মেয়র বলেন, শুধু প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা অর্জন করলে হবে না আমাদের নৈতিক শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে। কারণ নৈতিক শিক্ষা না থাকলে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা অর্থহীন। শিক্ষার্থীদের নৈতিক শিক্ষা প্রদানে শিক্ষকদের পাশাপশি অভিভাবকদেরও দায়িত্ব রয়েছে।

কাজেম আলী স্কুল এন্ড কলেজ পরিচালনা পরিষদের সভাপতি ও দৈনিক বীর চট্টগ্রাম মঞ্চ সম্পাদক সৈয়দ উমর ফারুক বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ভিশন বাস্তবায়নে কাজেম আলী স্কুল এ- কলেজের আড়াই হাজার শিক্ষার্থী প্রস্তুত রয়েছে। ইতোমধ্যে কাজেম আলী স্কুল সরকারের শিক্ষানীতি অনুসরণ করে ভালো ফলাফল অর্জন করেছে। তিনি আরো বলেন, গ্রীণ সিটি এবং ক্লিণ সিটি বাস্তবায়নে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। আমরা তাঁর এই মহৎ উদ্যোগ বাস্তবায়নে অতন্দ্র প্রহরী হিসেবে কাজ করে যাবো। আমরা কোনো ভাবেই এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অযাচিত হস্তক্ষেপ বরদাস্ত করব না । যারা গলাবাজি এবং দলবাজি করে এই প্রতিষ্ঠানে কর্তৃত্ব করতে চায় তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।