টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

চট্টগ্রামে ভারতীয় শিক্ষার্থী খুন : অভিভাবকদের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় পুলিশ

চট্টগ্রাম, ১৬ জুলাই ২০১৭ (সিটিজি টাইমস):চট্টগ্রামে নিহত ও আহত দুই ভারতীয় শিক্ষার্থীদের বিষয়ে আইনগত পদক্ষেপে তাদের পরিবারের সাথে পরামর্শ করা হবে। সহসা তাদের পরিবার চট্টগ্রামে আসবে বলে জানিয়েছে পুলিশ ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ইউএসটিসি কর্তৃপক্ষ।

চট্টগ্রামের আকবর শাহ থানা এলাকার আবদুল হামিদ সড়কের একটি বাড়িতে গত শুক্রবার রাতে আতিফ শেঠ নামের এক ভারতীয় শিক্ষার্থীর মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। একই কক্ষ থেকে রশিতে ঝুলন্ত অবস্থায় উইলসন সিং নামের অপর এক ভারতীয় শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করা হয়।

বর্তমানে তিনি সংকটাপন্ন অবস্থায় চট্টগ্রামের একটি বেসরকারি হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন। এই ইউনিভার্সিটি অব সাইন্স এন্ড টেকনোলজির এমবিবিএস চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী।

পুলিশ বলছে, আতিফ শেঠ খুনের ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন। আতিফের পরিবারকে সংবাদ দেয়া হয়েছে, তারা সহসা বাংলাদেশে আসছেন। মামলা হবে কিনা অথবা কারা বাদী হবে এই বিষয়ে নিহতের পরিবারের সিদ্ধান্তের উপর নির্ভর করবে।

তবে, পুলিশ এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে ইউএসটিসির কয়েকজন বিদেশি শিক্ষার্থীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। এসব শিক্ষার্থীদের সবাই ভারতীয়।

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের উপকমিশনার পশ্চিম ফারুক উল হক জানিয়েছেন, এই ঘটনায় কাউকে আটক করা না হলেও কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে, তার মধ্যে যারা আতিফ ও উইলসনকে হাসপাতালে নিয়ে গিয়েছিলো সেই নিরাজ ও জোসনাকে বিশেষ নজরদারিতে রাখা হয়েছে, মামলার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত না হওয়া পর্যন্ত তারা এখন চট্টগ্রাম ত্যাগ করতে পারবেনা।

চট্টগ্রামের ভারতীয় সহকারী হাইকমিশন অফিসও বিষয়টা নিয়ম- কানুনের মধ্যে থেকে তদারকি করছে বলেও জানান ফারুক উল হক।

এদিকে, শিক্ষার্থী খুনের বিষয়টি তদন্ত করছে ইউএসটিসি কর্তৃপক্ষ। ইউএসটিসির প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর নুরুর আবছারকে প্রধান করে ৭ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে তারা।

ইউএসটিসি রেজিষ্ট্রার বদরুল আমিন ভূইয়া জানিয়েছেন, পুলিশ ঘটনা তদন্ত করছে, এখন পর্যন্ত কয়েকজন ভারতীয় শিক্ষার্থীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি।

বিষয়গুলো সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের জানানো হয়েছে, তারা আজ-কালের মধ্যে চট্টগ্রাম আসছেন, নিহত, আহত এবং সন্দেহভাজন শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা আসলে এই ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে, ভারতীয় দূতাবাসও বিষয়টা দেখাশোনা করছে, উল্লেখ করেন তিনি।

বদরুল আমিন ভূইয়া আরো জানান, নিহত আতিফ শেঠের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে, বর্তমানে তার মরদেহ আঞ্জুমানে মফিদুল ইসলামের তত্ত্বাবধানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হয়েছে।

মতামত