টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

মিরসরাইয়ে অবরোধ ও সংঘর্ষের ঘটনায় ১৬৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা

আবুতোরাব-বড়তাকিয়া সড়কে সিএনজি চলাচল বন্ধ, মানুষের দুর্ভোগ

এম মাঈন উদ্দিন
সিটিজি টাইমস প্রতিবেদক 

চট্টগ্রাম, ১৬ জুলাই ২০১৭ (সিটিজি টাইমস):   চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার বড়তাকিয়া এলাকায় পুলিশ ও সিএনজি অটো-রিক্সা চালকদের সংঘর্ষের ঘটনায় গ্রেফতারকৃত ১২ নম্বর খৈয়াছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহেদ ইকবাল চৌধুরীকে প্রধান আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছে মিরসরাই থানা পুলিশ। শনিবার রাত ১০টার সময় বড়তাকিয়া বাজারে অবস্থিত ইউনিয়ন পরিষদের অস্থায়ী কার্যালয় থেকে আরো ৪জন সহ জাহেদকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের পরপর তার সর্মথকরা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে গাছের টুকরি ফেলে অবরোধের চেষ্টা করলেও পুলিশের বাঁধার মুখে তা পারেনি। অটো-রিক্সা চালকদের উপর পুলিশী হামলা ও চেয়ারম্যান জাহেদ ইকবালকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে আবুতোরাব-বড়তাকিয়া সড়কে রবিবার সকাল থেকে সিএনজি চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে করে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এই সড়কে যাতায়াতকারী শত শত যাত্রীদের।

এদিকে রবিবার সকালে পুলিশ বাদী হয়ে দায়ের করা মামলায় আসামী করা হয়েছে ১৬৫ জনকে। পুলিশের উপর হামলা, পুলিশে অস্ত্র ছিনতাই ও মহাসড়কে অবরোধের নামে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অভিযোগ আনা হয়েছে মামলার এজাহারে। রাত সাড়ে ১০টার সময় বাজারের পাশবর্তি একটি পুকুর থেকে পুলিশের ছিনতাই হওয়া রাইফেল উদ্ধার করা হয়েছে। মিরসরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাইরুল এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

জানা গেছে, হামলার ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ১২ নম্বর খৈয়াছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহেদ ইকবাল চৌধুরীসহ ৪ জনকে মিরসরাই থানা পুলিশ আটক করে। আটক তাঁকে চট্টগ্রামে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাইরুল ইসলাম জানান, গতকালের ঘটনায় ১৬৫ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়েছে । এই মামলার এজাহারভুক্ত আসামী হিসেবে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে আটক ইউপি চেয়ারম্যান জাহেদ ইকবাল চৌধুরীকে।

রবিবার (১৬ জুলাই) সরেজমিনে বড়তাকিয়া বাজারে গিয়ে দেখা গেছে, বাজারের ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষের মধ্যে আতংক রয়েছে। বাজারের পুলিশ টহল দিতে দেখা গেছে।

উল্লেখ্য, শনিবার বিকালে পুলিশের টোকেন বানিজ্য নিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান, সিএনজি চালকদের হাইওয়ে পুলিশের সাথে চেয়ারম্যানের তর্কবির্তক সৃষ্টি হয়। এসময় হাইওয়ে পুলিশের এএসআই জাকির ওই অটোরিক্সাটি আটক করে। জাহেদ ইকবাল নিজের পরিচয় দিয়ে অটোরিক্সাটি ছাড়ার অনুরোধ করলে ওই পুলিশ চেয়ারম্যানকে গালিগালাজ করে অটোরিক্সা জ্বালিয়ে দেয়ার হুমকী দেয় বলে অভিযোগ করেন চেয়ারম্যান জাহেদ ইকবাল।

এই খবর বড়তাকিয়া বাজারের অটোরিক্সা স্ট্যান্ডে পৌঁছলে চালকরা শতশত অটোরিকসা রেখে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করে। এসময় চেয়ারম্যান জাহেদ ইকবাল পুলিশের চাঁদাবাজি ও তাকে অপমানের প্রতিবাদে সন্ধ্যা ৭ টা পর্যন্ত অবরোধ ঘোষনা করে। পরে অবরোধ তুলে দিতে গেলে শত শত সিএনজি চালক ও গ্রামবাসীর সাথে পুলিশে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে। এতে সাংবাদিক পুলিশসহ অর্ধশত আহত হয়।

মতামত