টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

সোজা হয়েছে মহেশখালের দুই বাঁক

চট্টগ্রাম, ১৫ জুলাই ২০১৭ (সিটিজি টাইমস):  চট্টগ্রাম নগরের প্রায় ৮টি ওয়ার্ডের একটি বড় অংশের পানি (বৃষ্টি ও জোয়ারের) দ্রুত বঙ্গোপসাগরে নামার জন্য দক্ষিণ কাট্টলী অংশের জেলে পাড়ার রেল লাইনের ব্রিজের পর থেকে মহেশখালে যেতে দুইটি বাঁক সোজা করে দিল চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন। শনিবার বিকেলে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন মহেশখালের সাথে নতুন বাঁক কাটা খালের শুরু এবং শেষ অংশের সংযোগ করে বাঁক সোজা করার সমাপ্তি কাজের শুভ উদ্বোধন করেন।

এসময় মেয়র বলেন, মহেশখাল, নাজিরখাল ও গয়নার ছড়ার ধারণ ক্ষমতা বৃদ্ধি সহ নগরীতে বিদ্যমান সকল খালের ধারণ ক্ষমতা বাড়ানো হবে। তিনি বলেন, মহেশখালের বাঁধ কাটার পর থেকে লাগাতারভাবে এস্কেভেটর দ্বারা খাল থেকে মাটি ও আবর্জনা উত্তোলন অব্যাহত আছে। মহেশখালের মুখে আধুনিক পাম্প হাউস সহ স্লুইচ গেইট নির্মাণের মাধ্যমে মহেশখালের দু’পাড়ের অধিবাসীদের জলদুর্ভোগ লাঘব করা হবে।

এ সময় ১১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোরশেদ আকতার চৌধুরী, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবিদা আজাদ, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্ণেল মহিউদ্দিন আহমেদ, নির্বাহী প্রকৌশলী অসীম বড়ুয়া, বিপ্লব দাশ, নির্বাহী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) সুদীপ বসাক, জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আবদুর রহিম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত ৩ জুলাই অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন এ সংক্রান্ত একটি নকশা সাংবাদিকদের সামনে উপস্থাপন করেছিলেন। ইতিপূর্বে ২০১১ সনে মহেশখালের বাঁক সোজা করার লক্ষ্যে ২৭.৯ শতাংশ জায়গা চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন অধিগ্রহণ করেছিল। অধিগ্রহণকৃত জায়গায় খাল কেটে বাঁক সোজা করার কর্মসূচি গত ৬ জুলাই চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রকৌশলী বিভাগ এস্কেভেটর এর মাধ্যমে মাটি কাটার কাজ শুরু করে।

মতামত