টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

পুতিন চেয়েছিল হিলারি নির্বাচিত হোক, বললেন ট্রাম্প

চট্টগ্রাম, ১৩ জুলাই ২০১৭ (সিটিজি টাইমস):  মার্কিন নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপ, নির্বাচন প্রচারণাকালীন সময়ে ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশংসা এতো সব কাণ্ড সত্ত্বেও নাকি রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন চেয়েছিলেন হিলারি নির্বাচিত হোক। এমনটি বলছেন স্বয়ং মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

সম্প্রতি জি-টোয়েন্টি সম্মেলনে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বসেছিলেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ট্রাম্প বলেন, ‘হোয়াইট হাউজে প্রেসিডেন্টের আসনে হিলারি ক্লিনটন বসুক এমনটাই হয়তো চেয়েছিলেন পুতিন।’ সেই সঙ্গে তিনি আরও বলেছেন, পুতিনের সঙ্গে দেখা করে তার ‘খুব ভালো লেগেছে’। সম্প্রতি জার্মানির হামবুর্গে অনুষ্ঠিত জি-টোয়েন্টি সম্মেলনে পুতিন-ট্রাম্প বৈঠকের পর ক্রিশ্চিয়ান ব্রডকাস্টিং নেটওয়ার্ককে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে মার্কিন প্রেসিডেন্ট এসব কথা বলেন।

রাশিয়া ডোনাল্ড ট্রাম্পকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হতে সাহায্য করেছে এমন বেশ কয়েকটি অভিযোগ এখন তদন্তাধীন রয়েছে। যদিও ট্রাম্প ও রাশিয়া বরাবরই এ হস্তক্ষেপের বিষয়টি অস্বীকার করে আসছে।

পুতিনের সঙ্গে বৈঠক প্রসঙ্গে ট্রাম্প বলেন, মানুষজনকে বলতে শুনি যে, তাদের সাক্ষাৎ করা উচিত নয়। ঠিক আছে, কিন্তু কোন মানুষগুলো এসব কথা বলে? আমারতো মনে হয় আমাদের বৈঠক দারুণ ছিল এবং সাক্ষাতের পর দুজনেরই খুব ভালো লেগেছে। আমরা পরমাণু শক্তিতে বেশ শক্তিশালী এবং রাশিয়ার ক্ষেত্রেও তাই। আর তাদের সঙ্গে কোনোরকম সম্পর্ক রাখতে না চাওয়ার তো কোনো মানেই হয় না।

রাশিয়ার সহযোগিতার উদাহরণ টানতে সিরিয়ায় যুদ্ধবিরতিতে দুই পক্ষের একমত হওয়ার কথাটিও উল্লেখ করেন তিনি।

ট্রাম্পকে বিজয়ী করতে রাশিয়া যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করেছে, এমন অভিযোগের বিপরীতমুখী মন্তব্য করেন মার্কিন প্র্রেসিডেন্ট। ট্রাম্প বলেন, ‘রাশিয়া চেয়েছিল তার প্রতিপক্ষ হিলারি ক্লিনটন নির্বাচিত হোক। কেন তারা হিলারিকে চেয়েছিল জানেন? কারণ, হিলারি নির্বাচিত হলে আমাদের সেনাবাহিনী ধ্বংস হয়ে যেত।’

এদিকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারাভিযান চলার সময় রুশ আইনজীবীর সঙ্গে বৈঠকের ব্যাপারে ছেলে ডোনাল্ড জুনিয়ারের দেয়া বক্তব্যকে সমর্থন করেছেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, তার ছেলে নিরপরাধ, স্বচ্ছ এবং নির্দোষ।

রুশ আইনজীবী নাতালিয়া ভেসেলনিতস্কায়ার সঙ্গে ওই বৈঠকের বিষয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়রকে বলা হয়েছিল, তাকে রুশ সরকারের পক্ষ থেকে এমন তথ্য দেয়া হবে যা ট্রাম্পের প্রতিদ্বন্দ্বী হিলারি ক্লিনটনের জন্য ক্ষতিকারক হতে পারে। এই বৈঠকের খবর ফাঁস হওয়ার পর থেকেই এ নিয়ে তোলপাড় চলছে যুক্তরাষ্ট্রে।

ট্রাম্প জুনিয়র ফক্স নিউজ-কে বলেন, ওই বৈঠকটা ‘কোনও ব্যাপারই নয়’। তবে সেই সঙ্গে তিনি স্বীকার করেছেন বিষয়টা তার অন্যভাবে সামলানো উচিত ছিল।

কিন্তু ট্রাম্প আবারও নির্বাচনী প্রচারণার সঙ্গে রাশিয়ার সম্পর্ক থাকার কথা অস্বীকার করেছেন। রাশিয়া মার্কিন নির্বাচনে নাক গলানোর চেষ্টা করেছিল কি না, তা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা এখন তদন্ত করছেন। প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই ট্রাম্পকে বারবার এই অভিযোগের সম্মুখীন হতে হয়েছে যে রাশিয়া তার প্রতিদ্বন্দ্বী হিলারি ক্লিন্টনের প্রচারণায় অন্তর্ঘাত ঘটানোর চেষ্টা করেছিল। ট্রাম্প অবশ্য বরাবরই বলে আসছেন তার এ ব্যাপারে কিছুই জানা ছিল না। রাশিয়াও মার্কিন নির্বাচনে হস্তক্ষেপের অভিযোগ আগাগোড়া অস্বীকার করে এসেছে।

মতামত