টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

কাতারের প্রতি সমর্থন জানালো মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

চট্টগ্রাম, ১২ জুলাই ২০১৭ (সিটিজি টাইমস):  কাতারের উপর আরব দেশগুলোর অবরোধের পর মধ্যপ্রাচ্য নিয়ে এই প্রথম কাতারের পক্ষে স্পষ্ট বক্তব্য দিল আমেরিকা। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন বলেছেন, মধ্যপ্রাচ্য সঙ্কটে কাতারের অবস্থান সঠিক।

কাতারের বিরুদ্ধে অবরোধ জারির পর সৃষ্ট উপসাগরীয় কূটনৈতিক সঙ্কট নিরসনে মধ্যপ্রাচ্য সফর করছেন টিলারসন। চার দিনের মধ্যপ্রাচ্য সফরে থাকা টিলারসন কুয়েত সফর শেষে এখন কাতারে অবস্থান করছেন।

মঙ্গলবার কাতারের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র একটি সন্ত্রাস বিরোধী চুক্তি স্বাক্ষর করে। চুক্তি স্বাক্ষরের পর কাতারের প্রশংসা করে টিলারসন বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের একটিই লক্ষ্য পৃথিবীর বুক থেকে সন্ত্রাসবাদকে বিদায় করা। যুক্তরাষ্ট্র ও কাতার একসঙ্গে সন্ত্রাসের অর্থের উৎস ধ্বংস করতে আরো ভূমিকা রাখবে। সমন্বিতভাবে তথ্যের আদান-প্রদান করবে ।

কাতারের প্রশংসা করে টিলারসন বলেন, সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন চিহ্নিত ও রোধে কাতারের ভূমিকা প্রশংসনীয়। তিনি বলেন, চলমান মধ্যপ্রাচ্য সঙ্কটে কাতারের অবস্থান সঠিক।

সংবাদ সম্মেলনে কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুর রহমান আল থানি জানান, চলমান সঙ্কট ও অবরোধের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে স্বাক্ষরিত চুক্তিটির কোনো সম্পর্ক নেই। তিনি বলেন, আজ কাতার এই প্রথম কোনো দেশ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে এধরনের সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করলো।

কাতারের বিরুদ্ধে যেসব দেশ অবরোধ জারি করেছে, সে দেশগুলোকে এই সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষরের আহবান জানাচ্ছি।

সংবাদ সম্মেলনে রেক্স টিলারসন আরব দেশগুলোর প্রতি চলমান সঙ্কট নিরসনের আহবান জানান। তবে সঙ্কট নিরসনের কোনো সময়সীমা নিয়ে কথা বলতে রাজি হননি টিলারসন। আলোচনা চলছে জানিয়ে তিনি বলেন, আমার ভূমিকা হলো কুয়েতের আমিরের উদ্যোগকে সহযোগিতা করা। মধ্যস্ততাকারী হিসেবে কুয়েত যেসব বিষয় তুলে ধরেছে, সেগুলো নিয়ে উভয় পক্ষ আলোচনা করে সম্ভাব্য সমাধান বের করবে।

বুধবার টিলারসন সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও মিসরের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সঙ্গে জেদ্দায় বৈঠক করবেন।

উল্লেখ্য, জুন মাসের শুরুতে সন্ত্রাসে মদদের অভিযোগ তুলে কাতারের সঙ্গে সৌদি আরব, বাহরাইন, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও মিসর সম্পর্ক ছিন্ন করে দেশটিতে অর্থনৈতিক অবরোধ জারি করে। কুয়েত সঙ্কট সমাধানে মধ্যস্ততাকারীর ভূমিকা নিয়েছে। সর্বশেষ চারটি দেশের দাবি মেনে নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে কাতার।

আল জাজিরা অবলম্বনে

মতামত