টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রামপাল নিয়ে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান হাছান মাহমুদের

চট্টগ্রাম, ০৭  জুলাই ২০১৭ (সিটিজি টাইমস):   সুন্দরবনের অদূরে রামপালে নির্মাণাধীন বিদ্যুৎকেন্দ্রের ওপর থেকে ইউনেসকো কর্তৃক আপত্তি ও উদ্বেগ প্রত্যাহার করে নেওয়ায় বিদ্যুৎকেন্দ্রের বিরোধিতাকারী ও আন্দোলনকারীদের জাতির কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়ে আন্দোলন থেকে সরে আসার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি।

শুক্রবার দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে সাবেক পরিবেশ ও বনমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এই আহ্বান জানিয়ে বলেন, রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র নিয়ে যারা আন্দোলন করছেন, তাদের উদ্দেশ্য রাজনৈতিক। অনেকের উদ্দেশ্য ষড়যন্ত্রমূলক। কেউ কেউ আবেগপ্রবণ হয়ে এই আন্দোলনে শামিল হয়েছেন।

তিনি বলেন, রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ভুল তথ্য-উপাত্ত দিয়ে বিভ্রান্ত করার ফলে ইউনেসকো রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র নিয়ে উদ্বেগ ও আপত্তি জানিয়েছিল। সরকারের পক্ষ থেকে সুন্দরবনের নিরাপত্তা ও বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ বিষয়ে সঠিক তথ্য-উপাত্ত ইউনেসকো সদর দপ্তরে দেওয়ার পর তারা তাদের উদ্বেগ ও আপত্তি প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণে তারা অনুমোদন দিয়েছেন। এখন রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র নিয়ে যারা আন্দোলন করছেন, তাদের উচিত জাতির কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়ে আন্দোলন থেকে সরে আসা।

তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক নীতি অনুযায়ী কোনো বনের ১০ কিলোমিটারের মধ্যে এই ধরনের বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করা যাবে না। কিন্তু রামপালের যেখানে বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মিত হচ্ছে, সেখান থেকে ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ ঘোষিত সুন্দরবনের দূরত্ব প্রায় ৬৯ কিলোমিটার। এ ছাড়া সুন্দরবনের প্রান্ত সীমানা থেকে রামপালের দূরত্ব প্রায় ১৪ কিলোমিটার। এসব কিছু বিবেচনায় ইউনেসকো রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র নিয়ে তাদের আপত্তি প্রত্যাহার করে নিয়েছে। এই আপত্তি প্রত্যাহারের মধ্যে দিয়েই প্রমাণিত হয়েছে, রামপাল নিয়ে সরকার আগে যে বক্তব্য দিয়েছে, তা সঠিক ছিল।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এম এ সালাম, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, আওয়ামী লীগ নেতা ব্যারিস্টার নওফেল প্রমুখ।

মতামত