টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

বিএনপি-জামায়াত থেকে আসাদের যাচাই-বাছাই চলছে: কাদের

চট্টগ্রাম, ০৭ জুলাই ২০১৭ (সিটিজি টাইমস):   বিএনপি-জামায়াত থেকে যারা আওয়ামী লীগে ঢুকেছে সে বিষয়ে যাচাই-বাছাই চলছে বলে জানিয়েছেন ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। ময়মনসিংহে একটি অনুষ্ঠানে গিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

শুক্রবার সকালে শহরের চরপাড়া পয়েন্টে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে নির্মিত ফুটওভার ব্রিজের উদ্বোধন করতে গিয়েছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী। এ সময় তার কাছে রাজনৈতিক বিষয় নিয়ে প্রশ্ন রাখেন সাংবাদিকরা।

আট বছর ধরে টানা ক্ষমতায় থাকা আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছেন প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি এবং আরও বেশ কিছু দল থেকেও নেতা-কর্মীরা। স্বাধীনতাবিরোধী দল জামায়াত ছেড়েও কম লোক আসেনি আওয়ামী লীগে। এ কারণে ক্ষমতাসীন দলকে নানা সময় সমালোচনার মুখেও পড়তে হয়েছে।

সম্প্রতি দলের শীর্ষ পর্যায়ের বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় যে, অন্য দল থেকে কোনো লোক আনতে কেন্দ্রের অনুমতি লাগবে। গত ২২ মে ব্রিফিং করে এই কথা জানান ওবায়দুল কাদের।

এই সিদ্ধান্ত হওয়ার পর দল ত্যাগ করে স্থানীয় পর্যায়ে আওয়ামী লীগে আসার প্রবণতা কমেছে। তবে দলত্যাগী অনেক নেতাকর্মীর অপকর্মের দায়ভারের সমালোচনায় বিদ্ধ হতে হচ্ছে আওয়ামী লীগকে।

এ বিষয়টি নিয়েও ওবায়দুল কাদেরের কাছে জানতে চেয়েছিলেন সাংবাদিকরা। জবাবে তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গসংগঠনে ঢুকে পড়া বিএনপি জামায়াতদের বাছাই কাজ চলছে।’

আগামী নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিতে দলের নেতা-কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয় কাদের বলেন, ‘আওয়ামী লীগে জনগণের সম্পৃক্ততা বাড়ান। দলীয় শৃঙ্খলা বজায় রেখে সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনা করুন।’

মন্ত্রী বলেন, ‘রাজধানী ঢাকার সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজতর ও পথচারীদের রাস্তা পারাপার নিরাপদ রাখতে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ করা হয়েছে।’

অনেকস্থানে ফুটওভার থাকলেও কেউ ব্যবহার করতে চান না জানিয়ে দুর্ঘটনা রোধে এই সেতুটি ব্যবহার করতে সকলের প্রতি আহবান জানা কাদের।

ব্রহ্মপুত্র নদের ওপর সেতু নির্মাণে স্থানীয়দের দাবি শিগগির প্রধানমন্ত্রীর কাছে উপস্থাপন করার আশ্বাসও দেন সড়ক মন্ত্রী।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ১৭ ইসিবির কমান্ডিং অফিসার লেফটেন্যান্ট কর্নেল নিজাম উদ্দিন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ধর্মমন্ত্রী মতিউর রহমান, প্রকল্প বাস্তবায়ন মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইফতেখার আনিছ, উপ পরিচালক মেজর নূর মোহাম্মদ সিদ্দিক, ময়মনসিংহের জেলা প্রশাসক খলিলুর রহমান, পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি জহিরুল হক, সাধারণ সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এহতেশামুল আলম, সাধারণ সম্পাদক মোহিতউল আলম শান্ত, ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র ইকরামুল হক টিটু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মতামত