টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

বন্দরনগরীতে ছিনতাইকারীদের দৌরাত্ম্য বাড়ে ভোর ও সন্ধ্যায়

চট্টগ্রাম, ২৩ জুন ২০১৭ (সিটিজি টাইমস): বন্দরনগরী চট্টগ্রামে ছিনতাই-রাহাজানি বিপজ্জনক মাত্রায় বেড়ে চলেছে। মানুষ ছিনতাইকারীদের কবলে পড়ছে হেঁটে কিংবা রিকশায়, বাসে কিংবা ব্যক্তিগত গাড়িতে চলাচলের সময়; ভোরের আলো ফুটলে আর দিন শেষে সন্ধ্যা হলেই চট্টগ্রাম নগরীতে বেড়ে যায় ছিনতাইকারীদের দৌরাত্ম্য। এসব ছিনতাইকারীদের ধরতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা গলদঘর্ম হচ্ছে বলছেন পুলিশ কর্মকর্তারা। তারা জানান, আগে অস্ত্র নিয়ে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটলেও এখন অটোরিকশা ও মোটর সাইকেল নিয়ে নগরীতে হচ্ছে ছিনতাই, যাতে কলেজ পড়ুয়া ও সম্রান্ত পরিবারের অনেক তরুণও যুক্ত হয়ে পড়েছে।

সুত্র মতে, নগরীর জাকির হোসেন রোড, নিমতলা বিশ্বরোড থেকে বারিক বিল্ডিং, ওয়াসা থেকে আলমাস মোড়, সার্সন রোড, চেরাগী পাহাড় মোড় থেকে জামালখান হয়ে গণি বেকারী, চট্টগ্রাম কলেজ এলাকাটি বেশি ছিনতাই প্রবণ এলাকা। অটোরিকশা ও মোটর সাইকেল নিয়ে ওইসব এলাকায় ঘোরাফেরা করা ছিনতাইকারীদের মূল টার্গেটে থাকে নারীরা। রিকশাযাত্রী কোনো নারীকে পেলেই তারা মোটর সাইকেল ও অটোরিকশায় থেকে টান দিয়ে ব্যাগ ছিনিয়ে নেয়।

বিপদের কথা হলো, ছিনতাইকারীরা এখন শুধু লোকজনের টাকাপয়সা ও মূল্যবান জিনিসপত্র ছিনিয়ে নিয়েই ভাগছে না,তাদের দৌরাত্ম্য প্রান হারাচ্ছে অনেকে।  অটোরিকশা ও মোটর সাইকেল নিয়ে চলাফেরা করা এসব ছিনতাইকারীদের হাতে গত এক মাসে প্রাণ হারিয়েছেন এক তরুণী ও রিকশা চালকসহ দুইজন।

সর্বশেষ বুধবার রাতে নগরীর খুলশী এলাকায় এশিয়ান উইমেন ইউনিভার্সিটির এক বিদেশি শিক্ষিকা ছিনতাইয়ের শিকার হন। ডানা ম্যাকক্লেইন নামের এই শিক্ষিকার কাছে থেকে মোবাইল ও ল্যাপটপ ছিনিয়ে নিয়েছে ছিনতাইকারীরা।

নগর পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) আব্দুর ওয়ারিশ  বলেন, ছিনতাইকারীরা অটোরিকশা ও মোটর সাইকেল নিয়ে সাধারণের মতো ঘুরে বেড়ায়, তল্লাশি করে পুলিশ তাদের কাছ থেকে কিছুই পায় না। যে কারণে তাদের ধরা যায় না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পুলিশ কর্মকর্তরা জানান, চট্টগ্রাম নগরীতে বর্তমানে অস্ত্র দেখিয়ে ছিনতাইয়ের ঘটনা কমলেও বেড়ে গেছে এমন ‘টান পার্টির’ দৌরাত্ম্য। ছিনতাইকারীরা সবসময় ফাঁকা রাস্তাকেই বেছে নেয়। যেসব রাস্তায় যানজট হয় সেগুলো তারা এড়িয়ে চলে। ভোর বেলায় রেল, বাস স্টেশনে যাওয়া আসা যাত্রী ও অফিসগামীদের টার্গেট করে ছিনতাইয়ের কাজ করে থাকে।

দিনের অন্য সময়ে দৌরাত্ম কিছুটা কম থাকলেও সন্ধ্যার পরে বেপরোয়া হয়ে ওঠে ছিনতাইকারীরা। গত ১৩ জুন সন্ধ্যায় জামালখান এলাকায় রিকশা যাত্রী এক তরুণীর কাছ থেকে ব্যাগ টান দিলে মাটিতে পড়ে আহত হন তিনি। ছয়দিন পর সোমবার রাতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান শিরিন আক্তার নামের ওই তরুণী।

এ ঘটনায় পুলিশ এরশাদ উল্লাহ নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে। এরশাদ ও তার এক সহযোগী মোটর সাইকেল থেকে এ ছিনতাই করে বলে পুলিশ জানায়।

পুলিশ কর্মকর্তারা জানান, ছিনতাই করতে গিয়ে যারা ধরা পড়ে, তাদেরকেই তালিকাতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। বিভিন্ন সময়ে তারা কারাগার থেকে ছাড়া পেয়ে পুনরায় এ পেশায় জড়িয়ে পড়ে।ধরা পড়া ছিনতাইকারীদের নিয়ে পুলিশ নগরীতে অটোরিকশা নিয়ে ছিনতাই করা চক্রের ৩০ জনের মতো সদস্যকে চিহ্নিত করেছে, যাদের মধ্যে আটজন অটোরিকশা চালক।

গোয়েন্দা পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, অটোরিকশা নিয়ে ছিনতাইকারীদের প্রধান অটোচালকরা। তাদের ওপরই মূলত ছিনতাইয়ের কাজটি নির্ভর করে।মোটর সাইকেল নিয়ে ছিনতাইয়ের সঙ্গে অনেক শিক্ষার্থীও জড়িয়ে পড়ছে।

তবে এসব ছিনতাই প্রতিরোধে পুলিশ কাজ করছে জানিয়ে উপ-কমিশনার মোস্তাইন হোসাইন বলেন, “বিভিন্ন সময়ে অভিযানে অনেকককে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। এবিষয়গুলো নিয়ে আমরা কঠোর হচ্ছি।”

মতামত