টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

নিউমার্কেট এলাকায় পুলিশ-হকার সংঘর্ষে আহত ২৫, গ্রেফতার ৯

চট্টগ্রাম, ১৬ জুন ২০১৭ (সিটিজি টাইমস):: ফুটপাতে দোকান বসানোকে কেন্দ্র করে নগরীতে পুলিশ ও হকারের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষে তিন পুলিশসহ কমপক্ষে ২৫ জন আহত হয়েছেন। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৯ জনকে গ্রেফতার করেছে। শুক্রবার বিকেলে নগরীর কোতোয়ালী থানাধীন নিউ মার্কেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন বলেন, নিউ মার্কেট এলাকায় যানজট নিয়ন্ত্রণে রাখতে প্রথম রমজান থেকে রাস্তার ওপর হকার্সদের না বসতে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সিএমপি ও হকার্স নেতারা। এ কয়েকদিন সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে রাস্তার ওপর কোন হকার বসেনি। শুক্রবার বিকেলে হঠাৎ কিছু হকার রাস্তার ওপর বসে পড়ে। এসময় পুলিশ তাদের বাঁধা দিলে তারা পুলিমের ওপর হামলা চালায়। হামলায় তিন পুলিশ সদস্যসহ কয়েকজন আহত হয়েছেন। ওসি বলেন, হকাররা পুলিশের ওপর হামলা চালানোর সময় পুলিশ আত্মরক্ষার্থে ২১ রাউন্ড গুলি ছোঁড়ে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে ওই এলাকা থেকে পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগে ৯ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, যানজট নিরসনের জন্য হকারদেরকে রাস্তামুখী দোকান না বসানোর জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়। এ নির্দেশনা অমান্য করে হকাররা রাস্তামুখী দোকান খুলে বসে। শুক্রবার বিকেলে রাস্তামুখী দোকান সরিয়ে দিতে পুলিশ অভিযানে গেলে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। এ সময় জুবিলি রোডের জলসা সিনেমা মার্কেট এলাকায় ভবনের ওপর থেকে পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল ছোড়া হয়। এরপর পুলিশ লাটিচার্জ শুরু করে, শর্টগানের গুলি ছোড়ে। এসময় হকারদের সাথে পুলিশের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে এবং আশপাশের সড়কগুলোতে যানজটের সৃষ্টি হয়।

চট্টগ্রাম সম্মিলিত হকার্স ফেডারেশনের সভাপতি মিলন হোসেন বলেন, ২৫ বছর ধরে আমাদের হকাররা ব্যবসা করছেন। নালা ও ফুটপাতের যে অংশে ব্যবসা করার জন্য পুলিশ কমিশনার বলেছেন। সেখানে আমরা ব্যবসা করছি। কয়েকদিন আগে পুলিশ কমিশনারের কাছে গিয়ে আমরা বলেছিলাম, হকাররা অনেক টাকার মালামাল কিনে ফেলেছে। মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে ঈদ পর্যন্ত আমদেরকে রাস্তামুখী দোকান করার সুযোগ দেওয়া হোক। কিন্তু শুক্রবার বিকেলে পুলিশ এসে হকারদের তুলে দেয়। পুলিশের হামলায় ২০-২৫ জন হকার আহত হয়েছে। তারা বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। ১৪ থেকে ১৫ জন হকারকে পুলিশ আটক করেছে।

One comment

  1. ওসমান

    পৃথিবীর আর কোথাও এরকম ফুটফাত দখল হয়না।এটা অতীথকাল থেকেই রাজনৈতিক নেতাদের একটা মূলধন বিহীন কিনতু জমজমাট ব্যবসা হিসেবে চলে আসতেছে।তার ওপর আবার স্ব স্ব ব্যবসা সম্পর্কিত লীগ না হয় দল!!!। তো পুলিশের আবার শক্তি আছে উচ্ছেদ করার????????.ওডাল সেতু আছে কিন্তু সিডি কোথায় ??? কার দখলে ???।ওডাল সেতু দখলে,ফুটফাত দখলে তাহলে পায়ে হাটার পথ কি রাস্তার দখলে??????? আরে নাহ বেকুব রাস্তা ও তো গাডির দখলে !!!!!!! ।তাহলে আমরা কার দখলে ??? -ব্যবসায়ীক রাজনীতি নাকি রাজনৈতিক ব্যবসার ????. সম্মানীত মেয়র সাহেব আপনার আরো আন্তরিকতা আশা করি।

মতামত