টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

জেতার জন্যই খেলবে বাংলাদেশ : মাশরাফি

চট্টগ্রাম, ১৪ জুন ২০১৭ (সিটিজি টাইমস):: আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফির প্রথম ম্যাচে ইংল্যান্ডের কাছে হেরে ধাক্কা খায় বাংলাদেশ। পরের ম্যাচটি বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হলে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ১ পয়েন্ট পায় টাইগাররা। এই পয়েন্টটি বাংলাদেশের জন্য লাকি কয়েন হয়ে দেখা দেয়। শেষ ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে অসাধারণ এক জয় তুলে নিয়ে সেমিফাইনালে এক পা দিয়ে রাখে। শেষ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া স্বাগতিক ইংল্যান্ডের কাছে হেরে গেলে বাংলাদেশ প্রথমবারের মতো আইসিসির কোনো আসরের সেমিফাইনালের টিকিট পায়।

ফাইনালে গিয়ে ইতিহাস গড়ার হাতছানি এখন বাংলাদেশের সামনে। সেটাকে চোখ রাঙাচ্ছে ক্রিকেট পরাশক্তি ভারত। কিন্তু সেমিফাইনাল ম্যাচ নিয়ে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা বেশ উজ্জীবিত। তারা ভারতের বিপক্ষে জেতার জন্যই আগামীকাল মাঠে নামবে। ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাও তেমনটাই জানিয়েছেন।

মাশরাফি বলেন, ‘এই ম্যাচ নিয়ে ছেলেরা খুবই উজ্জীবিত। এ ধরণের একটি টুর্নামেন্টে সেমিফাইনাল খেলছে। এখানে আসার আগে এমনকী আয়ারল্যান্ড থেকেই আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ খেলার পরিকল্পনা করেছিলাম। সেভাবে খেলে সেমিফাইনালে উঠেছি। এই ম্যাচটিকে অন্যান্য ম্যাচের মতো করে খেলতে পারলে সেটা আমাদের জন্য ভালো হবে।’

দলের লক্ষ্য সম্পর্কে মাশরাফি বলেন, ‘আসলে আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ খেলার পরিকল্পনা করে খেলেছি। প্রত্যেকটা ম্যাচই আমরা জেতার জন্য খেলেছি। এটা একটা আলাদা ম্যাচ। এই ম্যাচের হাইপ অনেক থাকবে, স্বাভাবিক। আমাদের অবশ্যই লক্ষ্য থাকবে ভালো খেলার, জেতার। আমাদের প্রথম কাজ হবে রিলাক্স থেকে এই ম্যাচটি খেলা।’

আইসিসির বিভিন্ন টুর্নামেন্টে ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশ বেশ কয়েকবার খেলেছে। বেশিরভাগ হেরেছে। আবার জিতেছেও। ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের ক্রিকেটের এই বৈরিতাটাকে কিভাবে দেখেন মাশরাফি। এমন প্রশ্নের জবাবে বাংলাদেশের অধিনায়ক বলেন, ‘ক্রিকেট জাতি হিসেবে আপনি যদি উন্নতি করতে চান তাহলে এই ধরনের ম্যাচ প্রচুর আসবে। এই ধরনের টুর্নামেন্টে যদি আপনি আরো উপরে যেতে চান তাহলে এই ধরনের ম্যাচই খেলতে হবে। কারণ, আপনি এমন একটি টুর্নামেন্টে এসে কাউকে বেছে নিতে পারবেন না। বিশেষ করে নক-আউট পদ্ধতিতে যাওয়ার পরে। এই ধরনের ম্যাচ খেলতেই হবে। আসলে এটাকে উপভোগ করা ছাড়া বাড়তি চাপ কিংবা অন্যকিছু যদি মাথায় নিই তাহলে কাজগুলো আরো কঠিন হয়ে যাবে। আমি মনে করি সবাই যদি নির্ভার হয়ে অন্য একটা দ্বিপাক্ষিক সিরিজের মতো খেলতে পারে তাহলে হয়তোবা আমাদের পারফর্ম করতে সুবিধা হবে।’

মতামত