টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

আজ বাংলাদেশ জিতলে সেমির অপেক্ষা

চট্টগ্রাম, ০৯ জুন ২০১৭ (সিটিজি টাইমস): পুরো ব্রিটেনের আবহাওয়ার একই চিত্র। মেঘ বৃষ্টির ফাঁকে হঠাৎ রোদ। বুধবার সন্ধ্যা থেকে বৃহস্পতিবার বেলা ১২টা পর্যন্ত অল্প অল্প করে টানা বৃষ্টি। ঘণ্টা খানেক আকাশ ভালো থাকল। মাঠে কিছু সময় প্র্যাকটিসও করলেন মাশরাফিরা। কিন্তু আবার হতাশার বৃষ্টি শুরু। বেশিরভাগ সময়েই ইনডোরে প্র্যাকটিস করতে হলো টাইারদের। এরপর আবার কিছু সময়ের জন্য আকাশ চুপ থাকল। কিন্তু বিকালে আবারও বৃষ্টি।

আজ বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ডের বাঁচা মরার লড়াইয়ে দুই দলেরই প্রতিপক্ষ হয়ে উঠেছে এই বৃষ্টি। কারণ বৃষ্টির কারণে ম্যাচ ভেস্তে গেলে বাদ পড়তে হবে দুই দলকেই। তবে আজকের আবহাওয়ার খবর একটু ভালো। বৃষ্টি হওয়ার কথা আছে, সেটা বেলা ১১টার দিকে। টানা বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা কম। এজন্য ম্যাচটা হয়তো হবে, তবে ওভার কমতে পারে। যেতে পারে ডাকওয়ার্থ-লুইস মেথডে। এমন পরিস্থিতিতে টস জিতে আগে ব্যাট করতে চাইবে যেকোনও দল।

এ ম্যাচে যারা হারবে তাদের বাড়ি ফিরতে হবে। জয়ী দলকে অপেক্ষা করতে হবে ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের ফলের জন্য। অস্ট্রেলিয়া জিতলে তারাই চলে যাবে সেমিফাইনালে। মানে গ্রুপ ‘এ’ থেকে তখন সেমিতে উঠবে ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া। অন্যদিকে, অস্ট্রেলিয়া হারলে আজকের জয়ী দল চলে যাবে শেষ চারে। সেই দল বাংলাদেশ নাকি নিউজিল্যান্ড, তার জন্য অপেক্ষা করা ছাড়া পথ নেই।

আপাতত একই বৃত্তে দাঁড়িয়ে দুই দল। নিউজিল্যান্ডের মতো বাংলাদেশেরও এক পয়েন্ট। একটি করে হার। তবে নিউজিল্যান্ডের এক পয়েন্ট এসেছে দুর্ভাগ্যে। বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত না হলেও দুই পয়েন্টই পেতে পারত তারা। অন্যদিকে, বাংলাদেশ এক পয়েন্ট পেয়েছে সৌভাগ্যে, বৃষ্টির কৃপায়। ভাগ্য-দুর্ভাগ্য দুই দলকে একই জায়গায় নিয়ে এসেছে। সেমিফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখতে হলে আজ জিততেই হবে দুই দলকে। কিন্তু দুই দল নয়, জিতবে যেকোনও এক দল।

আবহাওয়া তো বটেই, উইকেটও ফ্যাক্টর হতে পারে এ ম্যাচে। উইকেট কেমন হবে তা এখনও স্পষ্ট নয়। আপাতত ঘাস আছে। কিন্তু আজ সকালে ঘাস ছেটে ফেলাও হতে পারে। সকালে উইকেট দেখেই একাদশ ঠিক করবে বাংলাদেশ। তবে মাশরাফির কথায় যেটুকু বোঝা গেল, তাতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলা একাদশ নিয়েই মাঠে নামবে বাংলাদেশ।

বোলিংয়ের সঙ্গে টপ অর্ডার ব্যাটিং নিয়েও চিন্তায় টিম ম্যানেজমেন্ট। যদিও মাশরাফি মুখে তা স্বীকার করছেন না। ব্যাটসম্যানদের উপর কোচ নাকি ক্ষুব্ধ। তামিম ছাড়া কারোর ধারাবাহিকতা নেই। শেষদিকেও ভালা ফিনিশিং দিতে পারছে না দল। বোলিংয়ের অবস্থা তো আরও খারাপ। দুই ম্যাচে সাকুল্যে ৩ উইকেট। মোস্তাফিজ উইকেট শূন্য। তক্তা উইকেটেও কোনও কিছু করতে পারছেন না সাকিবরা।

ছয় মাস আগে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ৩-০তে সিরিজ হারলেও আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজে কিউইদের হারিয়েছে বাংলাদেশ। কিন্তু মাশরাফি এ ম্যাচ নিয়ে ভাবতে চাইলেন না। তার মতে, এটা ভিন্ন ম্যাচ, ভিন্ন কন্ডিশন। এখানে জিততে হলে সেরা খেলাটাই খেলতে হবে। কার্ডিফে কী ২০০৫ সালের পূনরাবৃত্তি ঘটাতে পারবে টাইগাররা?  – ঢাকাটাইমস

মতামত