টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

ব্যাংকে যাদের লাখ টাকা তারা সম্পদশালী : অর্থমন্ত্রী

চট্টগ্রাম, ০২ জুন ২০১৭ (সিটিজি টাইমস): ব্যাংক লেনদেন অতিরিক্ত শুল্প আরোপের পক্ষে সাফাই গাইলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বললেন, বড়লোকের সংজ্ঞা দেয়া কঠিন।তিনি মনে করেন, বছরে এক লাখ টাকার উপরে সঞ্চয়কারীদের শুল্ক পরিশোধের সামর্থ্য আছে।

শুক্রবার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়াতনে বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, যারা একলাখ টাকা ব্যাংকে রাখতে পারেন, তারা আমাদের দেশের তুলনায় সম্পদশালী। তারা বাড়তি ভারটা বহন করতে পারবেন, সমস্যা হবে না।

সংবাদ সম্মেলনে কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব কাজী শফিকুল আযম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সরকারি ব্যাংকের পাশাপাশি বর্তমানে বেসরকারি ব্যাংকেও লুটপাট হচ্ছে এমন প্রশ্নের উত্তরে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘এই অ্যাজামশন (ধারণা) আমাদের মানতে কষ্ট হচ্ছে। কারণ ব্যাংকখাতে জালিয়াতি হয়, চুরিচামারি হয়। সব সময় হয়, সব দেশেই হয়। জালিয়াতি কোনো দেশে বেশি, আর কোনো দেশে কম হয়। এখন আমরা সেটা একটু কমাতে পেরেছি। ব্যাংক লুটপাট হচ্ছে বলে আমার মনে হয় না। তবে দুই-একটি ব্যাংকে সমস্যা আছে। সমস্যাগুলো সমাধানেরও পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।’

অর্থমন্ত্রীর বক্তব্যের পর ব্যাংক খাত নিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির বলেন, জনগণের টাকা নিয়ে সরকারি ব্যাংকগুলোকে দেয়া হয় এ কথা সত্য। তবে দেশের উন্নয়নে এসব ব্যাংকের ভূমিকা রয়েছে। কারণ বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নে সরকার এসব ব্যাংক থেকে অর্থ নিয়ে থাকে।

সঞ্চয়পত্রে সুদহার কমানো প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী বলেন, এখন থেকে প্রতিবছর সঞ্চয়পত্রের সুদহার সমন্বয় করা হবে। এর ধারাবাহিকতায় আগামী দুই মাসের মধ্যে সঞ্চয়পত্রের নতুন সুদহার নির্ধারণ করা হবে।

মতামত