টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

ভ্যাটের হার পুনর্বিবেচনার দাবি চট্টগ্রাম চেম্বারের

চট্টগ্রাম, ০১ জুন ২০১৭ (সিটিজি টাইমস): মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) ১৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ১০ থেকে ১২ শতাংশ করার দাবি জানিয়েছেন চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি মাহবুবুল আলম। বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে ২০১৭-১৮ অর্থ বছরের বাজেট ঘোষণার পর তাৎক্ষনিক প্রতিক্রিয়া তিনি এ দাবি জানান।

মাহবুবুল আলম বলেন, ব্যবসায়ীদের বারবার দাবির পরও ১৫ শতাংশ ভ্যাট অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে। আমরা আবারও এ হার পুনর্বিবেচনা করে ১০-১২ শতাংশ করার দাবি জানাচ্ছি। সামগ্রিকভাবে বাজেট উন্নয়নমূখী তবে ভ্যাটের হার হ্রাস করা না হলে ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন চ্যালেঞ্জিং হবে বলে আমরা মনে করি।

চট্টগ্রাম মহানগরীর যানজট নিরসনে লালখান বাজার থেকে শাহ আমানত বিমান বন্দর পর্যন্ত প্রায় ১৬ কি.মি. দীর্ঘ এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণ, ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলওয়ে করিডোর ডাবল লাইন উন্নীতকরণ এবং দোহাজারী-কক্সবাজার-ঘুনধুম রেললাইন সম্প্রসারণ প্রকল্পকে স্বাগত জানান এ ব্যবসায়ী নেতা।

তিনি বলেন, এসব প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে চট্টগ্রাম মহানগরের যানজট নিরসন,চট্টগ্রাম-ঢাকা ও বৃহত্তর চট্টগ্রামের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড আরও গতিশীল হবে।

মাহবুবুল আলম বলেন, ব্যক্তিগত করমুক্ত আয়ের সীমা আড়াই লাখ অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে। মূল্যস্ফীতি এবং অবচয়ন বিবেচনা করে এ সীমা বাড়ানো উচিত। একইভাবে নারী ও ৬৫ বছর বয়সী করদাতাদের ক্ষেত্রেও করমুক্ত আয়ের সীমা ৩ লাখ টাকা থেকে বৃদ্ধি করা উচিত।

কৃষি খাতে ব্যবহার্য যন্ত্রপাতি স্থানীয়ভাবে তৈরির লক্ষ্যে উপকরণ আমদানিতে ১ শতাংশ আমদানি শুল্কসহ সুবিধা সম্প্রসারণের প্রস্তাব করে ব্যবসায়ী এ নেতা বলেন, কৃষি খাতে প্রধান উপকরণ সার, বীজ, কীটনাশক ইত্যাদি আমদানিতে শুল্কহার শূন্য করা হয়েছে এবং চাল আমদানিতে সর্বোচ্চ শুল্ক বহাল রাখা হয়েছে যাতে কৃষক ন্যায্য মূল্য পায়। চামড়া শিল্পে বাসবার ট্রাংকিং সিস্টেম এবং ইলেক্ট্রনিক প্যানেলকে মূলধনী যন্ত্রপাতির রেয়াতি সুবিধা দেওয়া হয়েছে। একই ধরনের সুবিধা সব ধরনের শিল্পের ক্ষেত্রে দেওয়া উচিত বলে তিনি মনে করেন।

মতামত