টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

কেরানীহাট নিউ মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির নির্বাচনে ভোট গ্রহণ চলছে

শহীদুল ইসলাম বাবর
বিশেষ প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম, ০৭ মে ২০১৭ (সিটিজি টাইমস):: দক্ষিন চট্টগ্রামের সাতকানিয়ার ব্যবসায়ীক প্রানকেন্দ্র কেরানীহাট নিউ মার্কেট ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির নির্বাচন চলছে। ৭ এপ্রিল রবিবার সকাল সাড়ে আটটার থেকে শুরু হওয়া এ নির্বাচন চলবে বিকাল তিনটা পর্যন্ত। উক্ত নির্বাচনে সভাপতি পদে শহর মুল্লুক রাশেদ(চেয়ার), মোহাম্মদ শফি (মোটর সাইকেল), লোকমান হাকিম (প্রজাপতি), সহ-সভাপতি পদে মাওলানা লোকমান হাকিম (হারিকেণ) জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী (টেবিল ফ্যান) আব্দুর রহিম (গোলাপ ফুল), জামাল উদ্দিন (হাসঁ), সাধারণ সম্পাদক পদে, মোহাম্মদ আলী (দেয়াল ঘড়ি), মোহাম্মদ ফরিদুল ইসলাম (উড়ো জাহাজ), নাজিম উদ্দিন (হরিণ), অর্থ সম্পাদক পদে হামিদুল ইসলাম (আম), জহির উদ্দিন (কবুতর) শাহ আলম (আনারস), পরিচালক পদে, জামাল হোসেন (মোরগ), সামুনুর রশিদ সাইমন (দোয়াত কলম) মোহাম্মদ কায়ছার (ফুটবল), শহিদুল ইসলাম (সিলিং ফ্যান),এমরান হামিদ (মাছ) সাইফুল ইসলাম খোকন (জগ) মোহাম্মদ রিফাত (মোবাইল), নুরুল আমিন নুরু (তালা), নুর মোহাম্মদ (বই), মহিউদ্দিন (মই) প্রতীক নিয়ে মোট ১১টি পদের বিপরীতে ২৩ জন প্রার্থী প্রতিদদ্বন্ধিতা করছেন। নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও উপজেলা অডিট অফিসার শিব্বির আহমদ জানান, উক্ত নির্বাচনে মোট ৩ শ ২৭ জন ভোটার রয়েছে। সকাল সাড়ে ৮টা থেকে শুরু হওয়া ভোট গ্রহণ চলবে বিকাল ৩ টা পর্যন্ত। ভোট গ্রহণ ও গণনা ও ফলাফল ঘোষনাকালে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। নিরাপত্তার জন্য পুলিশ, আনসার ও গ্রাম পুলিশ নিযুক্ত করা হয়েছে।

সূত্রে জানা যায়, সভাপতি প্রার্থী শহর মুল্লুক রাশেদ গত দুই মেয়াদেই সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করছেন। এবারে তার প্রতিদন্ধি হয়েছেন মোহাম্মদ শফি ও লোকমান হাকিম। এর মধ্যে মোহাম্মদ শফি আগেও প্রার্থী হয়েছিলেন। সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচনে অংশ নেওয়া মোহাম্মদ আলীও বর্তমানে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদন্ধিতা করছেন। তার প্রতিদন্ধিতায় রয়েছে নবীন প্রার্থী মো. ফরিদ ও নাজিম উদ্দিন। অর্থ সম্পাদক পদে নির্বাচনে অংশ নেওয়া জহির উদ্দিন বর্তমানেও অর্থ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তার সাথে হামিদুল ইসলামের হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

সভাপতি প্রার্থী শহর মুল্লুক রাশেদ বলেন, আমি সভাপতির দায়িত্ব পালন কালীন সময়ে সমিতির সদস্যদের সমস্যা সামাধান ও সমিতির উন্নয়নের জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়েছি। আমার ভূমিকার সঠিক মূল্যায়ন হলে ভোটাররা আমাকেই নির্বাচিত করবে বলে আমার বিশ্বাস। অপর সভাপতি প্রার্থী মোহাম্মদ শফি বলেন, সমিতির প্রতিষ্ঠাতাদের একজন। দীর্ঘ দিন সমিতির সাথে জড়িত আছি। আমি নির্বাচিত হলে সমিতির সদস্যদের সমস্যা সামাধান ও সমিতির উন্নয়নে আমি সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাব।

সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী মোহাম্মদ আলী বলেন, সমিতির উন্নয়নে আমার ভূমিকা সকলের কাছেই প্রশংসনীয়। ভোটারদের কাছে ব্যাপক সাড়াও পাচ্ছি। আশা করি ভোটাররা আমাকে মূল্যায়ন করবে।

মতামত