টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

চবিতে অভিযান চলছে, বিপুল অস্ত্র উদ্ধার

চট্টগ্রাম, ০৫ মে ২০১৭ (সিটিজি টাইমস)::  চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৬ ঘণ্টা ধরে পুলিশের সাঁড়াশি অভিযানে শার্টারগানসহ বিপুল পরিমাণ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয়েছে ছাত্রলীগের তিন নেতাকে। শুক্রবার বেলা দুইটায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত অভিযান চলছে বলে জানায় পুলিশ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর মিজানুর রহমান অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বৃহস্পতিবার দুপুরে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে দফায় দফায় সংঘর্ষের পর চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) শাখা ছাত্রলীগের কমিটি স্থগিত ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। সেই সঙ্গে শুরু হয় পুলিশের সাঁড়াশি অভিযান।

বৃহস্পতিবার রাত ১০টায় শুরু হওয়া অভিযানে একের পর এক হলে তল্লাশি চালায় পুলিশ। এর মধ্যে শাহ জালাল, শাহ আমানত, সোহরাওয়ার্দী, এফ রহমান, আলাওল হল থেকে একটি শার্টারগানসহ বিপুল পরিমাণ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

জেলা পুলিশের (সদর) অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রেজাউল মাসুদ অস্ত্র উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, রামদা, কিরিচ ও হাঁসুয়া মিলে ২৫টির মতো ধারাল অস্ত্র রয়েছে। আর শাহজালাল হল থেকে শার্টারগানটি উদ্ধার করা হয়। অভিযানে গ্রেপ্তার করা হয় তিন ছাত্রলীগ নেতাকে। তবে তাদের নাম জানাননি তিনি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ছাত্রলীগের সভাপতি আলমগীর টিপু ও সাধারণ স¤পাদক ফজলে রাব্বী সুজনের অনুসারীদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষের ছয়জন আহত হয়। এরপর বৃহস্পতিবার রাতে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ স¤পাদক জাকির হোসাইন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) শাখা ছাত্রলীগের কমিটি স্থগিত ঘোষণা করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বলেন, চবি ছাত্রলীগে দফায় দফায় সংঘর্ষের জের ধরে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে এ কমিটি স্থগিত করা হয়। একই সঙ্গে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এই ইউনিটের সব কার্যক্রম স্থগিত রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মতামত