টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

অসুস্থ প্রতিযোগীতা রাজনীতির জন্য শুভ নয়: চট্টগ্রামে কাদের

চট্টগ্রাম, ২৯  এপ্রিল ২০১৭ (সিটিজি টাইমস)::  আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক, সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, চট্টগ্রাম রাজনীতির চারণভুমি। কিন্তু কাঁদাছোড়াছুড়ির কারনে তা মরুভুমি হয়ে উঠেছে। অসুস্থ প্রতিযোগীতা রাজনীতির জন্য কোনদিনই শুভ নয় বলে উল্লেখ করেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগের মুরুবিব বলতে আছেন একজনই। তিনি হচ্ছেন মহিউদ্দিন চৌধুরী। আমি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, মহিউদ্দিন ভাই আমারও মুরুব্বি। কিন্তু সারাদেশে দেখুন এ রকম একজন মুরুব্বি আর কোথাও নাই। তবুও চট্টগ্রামে কাঁদা ছোড়াছুড়ি কেন? এরকম একজন মুরুব্বি থাকলে তো আর কাউকে লাগে না।

কাদের বলেন, দুই সপ্তাহ আগেও যা করলেন, দু‘দিনের ভাল কাজে তা আর নেই। এতে অবাক চট্টগ্রামের রাজনৈতিক অঙ্গনও। অনেকে মনে করছে কেন্দ্রের হস্তক্ষেপে হয়েছে। কিন্তু না মহিউদ্দিন ভাই নিজেই এসব সমাধান করেছেন। মহিউদ্দিন ভাই চাইলে রাজনীতির চারণভুমি চট্টগ্রাম-এই ঐতিহ্যকে আরও সমৃদ্ধ করতে পারেন।

আজ ২৯ এপ্রিল শনিবার চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি সম্মেলনে এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের। নগরীর পাঁচলাইশে কিং অব চিটাগাং কমিউনিটি সেন্টারে সকাল ১০টায় শুরু হয় এ সম্মেলন। দুপুর সাড়ে ১২টায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ওবায়দুল কাদের। এতে সভাপতিত্ব করেন নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী।

সম্মেলনে অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ, কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদ আ জ ম নাছির উদ্দিন চৌধুরী।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় ওবায়দুল কাদের বলেন, আমি মহিউদ্দিন ভাই ও আ জ ম নাছির ভাইকে বলছি। যা হওয়ার হয়েছে। পেছনে না থাকিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে চলুন। আমাদের পেছনে লেগে রয়েছে বিএনপি-জামায়াত জোট। আমরা বিভেদ চাই না। অসুস্থ রাজনীতি চাই না।

তিনি বলেন, সরকার কওমি মাদ্রাসার শিক্ষা সনদের স্বীকৃতি দিয়েছে। এতে হেফাজত সরকারের কাছে কৃতজ্ঞ। হুজুরেরা হক বুঝেন বলে কৃতজ্ঞতা স্বীকার করছেন। তাতে গা জ্বলছে বিএনপি-জামায়াত জোটের। বিপরীতে বিএনপি-জামায়াত জোট বলছে, হেফাজতের সাথে নাকি জোট করেছে সরকার। সরকার তাদের সাথে কোন চুক্তি বা জোট করেনি।

হাওড় প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তারা বলছে আমরা নাকি হাওড়ে লুটপাট করছি। আসলে তারা অতিতের মতো লুটপাট করতে না পেরে এসব কথা বলছে। অতিতের মতো ভাঙা রেকর্ড বাজাচ্ছে ফেসবুকে।

ভারত প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ভারত আমাদের দু:সময়ের বন্ধু। আওয়ামী লীগ দেশের স্বার্থ বিলিয়ে দিয়ে কারো সাথে বন্ধুত্ব করে না। সবার আগের দেশ। দেশের স্বার্থ রক্ষার জন্য আওয়ামী লীগ বন্ধুত্ব করে।

কেন্দ্রীয় যুগ্ন সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ বলেন, গত নির্বাচনে আসেননি। রাজনীতির মাঠ থেকে সঠকে গিয়ে ভুলের মাশুল গুনছেন। আগুন সন্ত্রাস করে মানুষের উপর প্রতিশোধ নিয়েছেন। এবার নির্বাচনে না এলে রাজনীতির আস্তাকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হবেন।

সম্মেলনে চট্টগ্রামের বিভিন্ন জেলা-উপজেলা ও ওয়ার্ডের প্রায় দেড় হাজার প্রতিনিধি অংশ নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন।

মতামত