টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

স্বাধীনতার পর আ.লীগ প্রথম জয় করলো ভূজপুর

মীর মাহফুজ আনাম
ফটিকছড়ি থেকে

চট্টগ্রাম, ১৬ এপ্রিল ২০১৭ (সিটিজি টাইমস)::  ফটিকছড়ি উপজেলার আবদুল­াহপুর আর ভূজপুরে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর জয়জয়কার হয়েছে। আবদুল­াহপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন আ.লীগের প্রার্থী মো. অহিদুল আলম। তার প্রাপ্ত ভোট ১ হাজার ৯ শত ৩৪ । তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি স্বতন্ত্র প্রার্থী এস.কে এম সেলিম পেয়েছেন ১ হাজার ৯৪ ভোট।

ভূজপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন আ.লীগের প্রার্থী মো.ইব্রাহীম তালুকদার। তার প্রাপ্ত ভোট ৪ হাজার ২ শত ৫৬। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনের তাপস চন্দ বাবু পেয়েছেন ৪ হাজার ২ শত ৫১ ভোট। মাত্র ৫ ভোটের জন্য চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে না পারার দু:খ আজীবন বয়ে বেড়াবে তাপস চন্দ বাবুর।

আলোচনায় না থেকেও ভূজপুরে বিজয় হয়ে সবাইকে চমকে দিয়েছেন মো.ইব্রাহীম তালুকদার। স্বাধীনতার পর ভূজপুরে এই প্রথম কোন আ.লীগের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন। বিগত সময়ে জামায়াত ও বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীরা বিজয় হলেও এবার জামায়াতের প্রার্থী শফিউল আলম নূরী পেয়েছেন ২ হাজার ৬ শত ৩৪ ভোট । এবং বিএনপির প্রার্থী নাজিম উদ্দিন বাচ্চু পেয়েছেন ৭ শত ৪ ভোট।

সরেজমিনে ভোট কেন্দ্র পরিদর্শনে দেখা যায়, দুই ইউনিয়ন আব্দুল­াহপুর ও ভূজপুরে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বড় ধরণের কোন প্রকার অপ্রিতীকর ঘটনা না ঘটলেও , আব্দুল­াহপুরে ভোট গ্রহনের শুরুতে সকাল আটটার দিকে অস্ত্রধারী এক যুবলীগের নেতা কেন্দ্রের দিকে যেতে চাইলে মোহাম্মদ তৌকিরহাট এলাকায় পুলিশের চেক পোষ্ট দেখে পালানোর সময় পুলিশ তাকে ধাওয়া করে অস্ত্রসহ গ্রেফতার করে।

ফটিকছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু ইউছুফ মিয়া জানান, গ্রেফতার হওয়া যুবকের নাম মো. ফারুক(৪০)। তার কাছ থেকে রিভলবার ও ছয় রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। ধারণা করা হচ্ছে ভোট কেন্দ্রে ত্রাস সৃষ্টি করতে অবৈধ অস্ত্র নিয়ে সে যাচ্ছিল।

অপরদিকে ভূজপুর ইউনিয়ন পরিষদেও কোন ধরণের সহিংসতা কিংবা ভোট কেন্দ্র দখলের মতো দৃশ্য চোখে পড়েনি। নির্বাচনে শতস্পূর্ত অংশ গ্রহন লক্ষ্যনীয়। দুপুর দু‘টার দিকে ভূজপুর গাছবাড়িয়া সরকারী প্রা.বিদ্যালয়ে শতবর্ষের এক বৃদ্ধকেও ভোট দিতে দেখা যায়।

প্রশাসনের কঠোর অবস্থান দেখে উপস্থিত ভোটাররা এ নির্বাচনকে অতীতের নির্বাচনের তুলনায় নজিরবিহীন বলে মন্তব্য করেছেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) দীপক কুমার রায় জানান, ‘প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে বাড়তি নিরাপত্তার জন্য আবদুল­াহপুর ও ভূজপুরে ২ জন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট, পুলিশ ও আনসার সদস্য মিলে ২৭ জন সদস্য দায়িত্ব পালন করেছেন। আর সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে নির্বাচনীয় এলাকায় র‌্যাব, পুলিশ, বিজিবির সদস্যরা নিয়মিত টহলে ছিলেন।’

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত