টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

দেশের প্রতিটি জেলায় হবে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর

চট্টগ্রাম, ১৬ এপ্রিল ২০১৭ (সিটিজি টাইমস):: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, প্রতিবেশীর সঙ্গে বন্ধুত্ব রেখেই অধিকার আদায় করেছে বাংলাদেশ। রাজধানীর আগারগাঁওয়ে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের নতুন ভবনের উদ্বোধন করতে গিয়ে রোববার এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, দেশের প্রতিটি জেলায় মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর প্রতিষ্ঠা করা হবে। আর মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের অধিকার আদায় করে দেয়া রাষ্ট্রের কর্তব্য।

পঁচাত্তরের পট পরিবর্তনে দেশের ঐতিহ্য-সংস্কৃতিও বদলে দেয়ার চেষ্টা করা হয় অভিযোগ করে বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, একাত্তরের সেই ঘাতকদের আবার রাজনীতিতে নির্বাসিত করা হয়। কিন্তু আমরা সেই যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করেছি। আমরা এমন সব যুদ্ধাপরাধীর বিচার করেছি, যা কেউ কল্পনাও করতে পারেননি। বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডেরও বিচার করেছি। এজন্য রায় প্রদানকারী বিচারক ও সংশ্লিষ্ট সকলকে আমি ধন্যবাদ জানিয়েছি।

এসব বিচার সম্পন্ন হওয়ার মূল কৃতিত্ব জনগণের বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, জনগণ আমাদের ভোট দিয়ে ক্ষমতায় বসিয়েছে বলে আমরা এ বিচার করতে পেরেছি। এজন্য জনগণকেও ধন্যবাদ জানাই।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতির জনকের নীতি অনুযায়ী আমরা বন্ধু রাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্কোন্নয়নে কাজ করছি। আমরা স্থল সীমান্তে যে ছিটমহল সমস্যা ছিল তা সমাধান করেছি। সমুদ্রসীমা নিয়ে আন্তর্জাতিক আদালতে গিয়েছি। সমুদ্রসীমা জয় করেছি। কিন্তু কোনো বন্ধুত্বে চিড় ধরেনি।

জনসাধারণ, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সরকারি তহবিল থেকে দেওয়া ১০২ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রায় এক একর জায়গায় মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের নয়তলা ভবন নির্মিত হয়েছে। এ ভবনের এক লাখ ৮৫ হাজার বর্গফুট আয়তনের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধের স্মারক প্রদর্শনে চারটি গ্যালারি রয়েছে। শব্দ ও আলোর প্রক্ষেপণের বিশেষ প্রদর্শনী থাকছে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে।

স্থপতি তানজিম হাসান সেলিমের নকশায় দৃষ্টিনন্দন স্থাপত্যশৈলীর জাদুঘর ভবনটি গড়া হয়েছে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত