টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

মমতাকে বাদ দিয়েই তিস্তা চুক্তি করবেন মোদী

চট্টগ্রাম, ১৪ এপ্রিল ২০১৭ (সিটিজি টাইমস)::পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে বাদ দিয়েই বাংলাদেশের সঙ্গে তিস্তার পানি বণ্টন চুক্তির কথা চিন্তা করছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

শুক্রবার (১৪ এপ্রিল) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্রের বরাত দিয়ে এই খবর প্রকাশ করেছে ভারতের আনন্দবাজার পত্রিকা।

পত্রিকাটির প্রতিবেদনে বলা হয়, তিস্তা নিয়ে টানাপড়েনের মধ্যেই মোদী সরকারের জলসম্পদ প্রতিমন্ত্রী সঞ্জীব বালিয়ান আজ জানিয়ে দিলেন, নদীর জলের বিষয়টিকে রাজ্য তালিকা থেকে যৌথ তালিকায় আনার কথা ভাবছে কেন্দ্র। বালিয়ান অবশ্য তিস্তার কথা আলাদা ভাবে উল্লেখ করেননি। তাঁর মতে, নদী যৌথ তালিকায় এলে নানা রাজ্যের মধ্যে নানা মত এড়ানো যাবে।

আনন্দবাজার বলছে, এ বছরের জানুয়ারি মাসেই কেন্দ্রীয় জলসম্পদ মন্ত্রী উমা ভারতী ‘জল’কে যৌথ তালিকায় আনা নিয়ে রাজ্যগুলির মতামত জানতে চেয়েছিলেন। সেই সময়ই তিনি মানস-সঙ্কোশ-তিস্তা-গঙ্গা-মহানদী-গোদাবরীর সংযুক্তির একটি বড় প্রকল্প হাতে নেওয়ার কথাও বলেন। নদীকে যৌথ তালিকায় আনতে হলে সংবিধান সংশোধন করতে হবে।

বিদেশ মন্ত্রকের এক সূত্রের মতে, তিস্তা নিয়ে আপাতত তিনটি ভাবনা রয়েছে কেন্দ্রের। এক, যৌথ তালিকায় এনে নদীর বিষয়ে কেন্দ্রের এখতিয়ার বাড়ানো। দুই, মমতাকে আরো বোঝানোর চেষ্টা করা। তিন, তাতেও কাজ না হলে একতরফা এগোনোর কথা ভাবা।

দিল্লিতে শেখ হাসিনাকে পাশে নিয়ে মোদী বলেছেন ‘আমার ও আপনার সরকারের আমলেই তিস্তা চুক্তির সমাধান হতে পারে।’ তৃণমূলের কেউ সরকারি ভাবে কিছু না বললেও মনে করছেন, আন্তর্জাতিক বিষয়ে কেন্দ্র একতরফা সিদ্ধান্ত নিতেই পারে। তবে রাজ্যের সমস্যার বিষয়টিও গুরুত্ব দেয়া উচিত। তৃণমূলের কথায়, বাজপেয়ীর আমলে নদী সংযুক্তির প্রস্তাব এলেও পরে তা এগোয়নি। সেটা হলে তিস্তার জলই ঢাকাকে দেয়া যায়।

তবে তিস্তা নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে বিকল্প প্রস্তাব দিয়েছেন, কেন্দ্র তাকে আমল দিচ্ছে না। বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র আজ বলেন, ‘দু’দেশের যৌথ বিবৃতিতে যা বলা হয়েছে, সেটাই দিল্লির অবস্থান।’

মতামত