টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

মুরাদপুর-লালখান বাজার ফ্লাইওভারের নির্মাণসামগ্রী পড়ে শিক্ষার্থী আহত!

চট্টগ্রাম, ১০ এপ্রিল ২০১৭ (সিটিজি টাইমস)::কয়েক দফা দুর্ঘটনায় বিভিন্ন পথচারী আহত হওয়ার পর এবার নির্মাণাধীন মুরাদপুর-লালখান বাজার উড়ালসেতুর ওপর থেকে পাথর পড়ে বাংলাদেশ মহিলা সমিতি বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী সামিরা রহমান (১১) আহত হয়েছে। তার মাথায় ছয়টি সেলাই দেওয়া হয়েছে। ভর্তি করা হয়েছে একটি বেসরকারি হাসপাতালে।

সোমবার (১০ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

সামিলার বাবা আইনজীবী মুজিবুর রহমান অপারেশন থিয়েটারের সামনে বলেন, সকালে হেঁটে স্কুলে ঢুকার সময় ফ্লাইওভার থেকে একটি পাথর পড়ে সামিলার মাথায় পেছনের অংশ ফেটে যায়।খবর পেয়ে ঘটনাস্থল গিয়ে তাকে ন্যাশনাল হাসপাতালে নিয়ে আসি। প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। অস্ত্রোপচারের পর তাকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।”

এ ঘটনায় মামলা করবেন জানিয়ে তিনি বলেন, “এর আগে বহদ্দারহাট ফ্লাইওভারের গার্ডার ধ্বসে এত প্রাণহানি হওয়ার পরেও তারা এখনো সতর্ক হয়নি। একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সামনে নির্মাণ কাজ চলছে, অথচ নিরাপত্তার কোনো বালাই নাই তাদের। পথচারীরাও দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। এগুলো বন্ধ হওয়া উচিত।”

আখতারুজ্জামা বাবু ফ্লাইওভারের প্রকল্প পরিচালক চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাহফুজুর রহমান বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, বাওয়া স্কুরের সামনের অংশে ফ্লাইওভারের নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে অনেক আগে। ওখানে কোনো চলমান কাজ নেই। ফ্লাইওভার থেকে নির্মাণসামগ্রী পড়ার কোনো প্রশ্নই উঠে না। স্কুলের সামনে একটা পাগল পথচারীদের ইট ছুড়ে মারছে বলে খবর পেয়েছি। হয়ত ওই পাগলের ছোঁড়া ইট বা পাথরেও ওই শিক্ষার্থী আহত হয়ে থাকতে পারে।

ন্যাশনাল হাসপাতালের সার্জন ডা. মো. আবু নাছের বলেন, “সামিলার মাথার পেছনে অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আমরা ছয়টি সেলাই দিয়েছি। অস্ত্রপাচারের পর থেকে তাকে আমরা ২৪ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে রেখেছি।”

নগরীর মুরাদপুর থেকে লালখান বাজার পর্যন্ত প্রায় পাঁচ দশমিক দুই কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের এ ফ্লাইওভারটির নির্মাণ কাজের উদ্বোধন হয় ২০১৪ সালের ১১ নভেম্বর।

মতামত