টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

সন্দ্বীপে নৌকাডুবি: মঙ্গলবার ৯ জনের লাশ উদ্ধার

চট্টগ্রাম, ০৪ এপ্রিল ২০১৭ (সিটিজি টাইমস)::   চট্টগ্রামের সন্দ্বীপের গুপ্তছড়া ঘাট এলাকায় ‘লাল বোট’ ডুবির দুই দিন পর আরও নয়জনের লাশ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার ঘটনাস্থলের এক কিলোমিটারের মধ্যে সাগরে ভাসমান অবস্থায় মৃতদেহগুলো উদ্ধার করা হয়।

এরা হলেন- নিজাম উদ্দিন (৪০), মাসুদুর রহমান (২২), কামরুজ্জামান (৩২), মাঈনুদ্দীন (৩৫), ইউসুফ মাস্টার (৪০) এবং ওসমান মাস্টার (৩৭), হাফেজ উল্লাহ (৫৫) ও শামসুল আলমের (৩১) লাশ উদ্ধার করা হয়। এছাড়া একটি লাশের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

সন্দ্বীপ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. গোলাম জাকারিয়া বলেন, এ পর্যন্ত উদ্ধার ১৪টি মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। নিহত ব্যক্তিদের পরিবারকে ২৫ হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তা দেওয়া হয়েছে।

সন্দ্বীপ থানার ওসি শামসুল আলম বলেন, ‘লাল বোট’ ডুবির ঘটনায় মঙ্গলবার আরও নয়জনের লাশ পাওয়া গেছে। সোমবার পাওয়া গিয়েছিল পাঁচজনের। সে হিসেবে এখন পর্যন্ত ১৪ জনের লাশ উদ্ধার হল। এখনো নিখোঁজ রয়েছে অন্তত ১০ জন।

তিনি আরও বলেন, বৈরী আবহাওয়ার কারণে কার্যত উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করা যাচ্ছে না। যে মরদেহগুলো উদ্ধার করা হয়েছে, সেগুলো সাগরের তীরে ভেসে আসার পর স্থানীয় জনগণই উদ্ধার করে। পরে উপজেলা প্রশাসন এসব মরদেহ গুপ্তছড়া ঘাটে নিয়ে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করে।
এর আগে সীতাকুন্ডের কুমিরা ঘাট থেকে ‘এসটি সালাম’ নামের সী ট্রাকটি রোববার বিকাল চারটার দিকে সন্দ্বীপের গুপ্তছড়া ঘাটের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করে। এক ঘন্টার যাত্রাপথ হলেও সাগর ছিল উত্তাল। ¯্রােত বেশি থাকার পাশাপাশি বৈরি আবহাওয়ার কারণে সী ট্রাকটি পৌঁছাতে সন্ধ্যা সাতটা হয়ে যায়। নিয়ম অনুযায়ী গুপ্তছড়া ঘাটের কয়েকশ মিটার দূরে অবস্থান নেয় সী ট্রাক এসটি সালাম। সি ট্রাক থেকে ঘাটে ওঠার জন্য লাল বোটে চড়েন যাত্রীরা। ওই সী-ট্রাক থেকে এক ট্রিপে তিনটি লাল বোট যাত্রীদের নামিয়ে দেয়া হয়। দ্বিতীয় ট্রিপে তিনটির একটি লাল বোট উল্টে যায়। ওই বোটে কতজন যাত্রী ছিল নিশ্চিত করে জানা যায়নি। ঘটনার পর অন্তত ২৫ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে।

মতামত