টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

পরিবেশবান্ধব শিল্পায়ন সরকারের রাজনৈতিক অঙ্গীকার: চট্টগ্রামে শিল্পমন্ত্রী

চট্টগ্রাম, ১৯  মার্চ ২০১৭ (সিটিজি টাইমস): টেকসই ও পরিবেশবান্ধব শিল্পায়ন আওয়ামী লীগ সরকারের রাজনৈতিক অঙ্গীকার উল্লেখ করে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু এমপি বলেছেন, এ অঙ্গীকার বাস্তবায়নে আমদের শিল্পখাতের গুণগুণ পরিবর্তনের লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছি।

রবিবার বিকেলে চট্টগ্রাম নগরীর পোলগ্রাউন্ড মাঠে চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স এর আয়োজিত ২৫ তম চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় শিল্প মন্ত্রণালয় ইতোমধ্যে জাতীয় শিল্পনীতি ২০০১৬ প্রনয়ণ করেছে। দেশে উদ্যোক্তা ও উতপাদনবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি করাই এ শিল্পনীতির প্রনয়নের অন্যতম লক্ষ্য। এ নীতির আলোকে শিল্পখাতের উন্নয়ন ব্যাপক কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। ফলে দেশে নতুন নতুন উদীয়মান শিল্পখাত আত্মপ্রকাশ করছে এবং জাতীয় অর্থনীতি শিল্পখাতের ভূমিকা জোরদার হচ্ছে।

জিডিপিতে শিল্পখাতের অবদান ক্রমেই বাড়ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর হিসেব অনুযায়ী ২০১৫-১৬ অর্থবছরে স্থির মূল্য জিডিপিতে সার্বাধিক শিল্পখাতের অবদান ৩১.৫৪ শতাংশ। ২০১৪-১৫ অর্থবছরে এর অনুপাত ছিল ৩০.৪২ শতাংশ। এ ধারা অব্যাহত রেখে আমরা ২০২১ সালের আগেই মধ্যম আয়ের এবং ২০৪১ সালের আগেই আমরা উন্নত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণের লক্ষ্য অর্জনে সক্ষম হবো বলে আমি আশাবাদী।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ দ্রুত উন্নয়ননের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। বিভিন্ন সেক্টরে তার নির্দেশনায় গৃহীত নীতি ও কর্মসূচির ফলে দেশের অর্থনৈতির বুনিয়াদ অব্যাহতভাবে শক্তিশালী হচ্ছে। জনগণের মাথাপিছু আয় বৃদ্ধি পেয়ে ১৪৭০ মার্কিন ডলারে পৌঁছেছে। এর ফলে জনগণের ক্রয়ক্ষমতাও বাড়ছে। ক্রয়ক্ষমতার বিবেচনায় বর্তমানে বাংলাদেশ বিশ্বের ৩২ তম বৃহৎ অর্থনীতির দেশ।

চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি মাহাবুবুল আলমের সভাপতিত্বে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন,চট্টগ্রাম সিটিকর্পোরেশনের মেয়ের আ জ ম নাসির উদ্দিন, এফবিসিসিআই’র ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শফিউল ইসলাম (মহিউদ্দিন), আয়োজক কমিটির চেয়ারম্যান নুরুন নেওয়াজ সেলিম। এছাড়াও চট্টগ্রামের দৈনিক আজাদীর সম্পাদক এম এ মালেক, ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার সোমনাথ হাওলাদারসহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মতামত