টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

অকাল বৃষ্টিতেই যবুতবু কেরানীহাট

মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ হাজারো মানুষের ভোগান্তি

শহীদুল ইসলাম বাবর
বিশেষ প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম, ১৩ মার্চ ২০১৭ (সিটিজি টাইমস)::  বসন্তের শুরুতেই কয়েক দিনের অকাল বর্ষনে যবুতবু অবস্থা সাতকানিয়ার কেরানীহাটের। সড়কের পাশে বৃষ্টির পানি জমে থাকায় যাত্রী সাধারণ ও বাজারে আগ¦ত ক্রেতা-বিক্রেতাদের দারুন ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। অপর দিকে চলাচলের রাস্তার উপর পানি জমে কেরানীহাট জামেউল উলুম ইসলামিয়া ফাজিল (ডিগ্রী) মাদ্রসার শিক্ষক শিক্ষার্থীরা মাদ্রাসায় প্রবেশ করতে পারছেনা বলে খবর পাওয়া গেছে। মাদ্রাসার সিনিয়র শিক্ষক মাওলানা নুরুল হক সিরাজী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, আমি এ বিষয়ে কেরানীহাট ব্যবসায়ী সমিতির নেতাদের মৌখিক ভাবে অভিযোগ করেছি। এহেন পরিস্থিতিতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ব্যবসায়ীরা। ব্যবসায়ীরা বলেছেন, কেরানীহাট প্রগতিশীল ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির একাধিক নেতা কেরানীহাটে ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় পানি জমে ভোগান্তির প্রসঙ্গ তুলে ড্রেনেজ ব্যবস্থা নিশ্চিত করবেন প্রতিশ্রুতি দিয়ে আমাদের ভোট নিয়েছেন। কিন্তু যে লাউ সেই কদু অবস্থা। এখনো পর্যন্ত কেরানীহাটে ড্রেনেজ ব্যবস্থা নিশ্চিত করনের জন্য কোন ধরনের উদ্যেগ নেওয়া হয়নি। ফলে ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় হাজারো মানুষের ভোগান্তির অন্ত নেই। তবে কেরানীহাট নিউ মার্কেট ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি ও কেরানীহাট ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সাবেক সহ-সভাপতি ওসমান আলী নিজস্ব অর্থায়নে জমে থাকা পানি সরিয়ে দেওয়ার উদ্যেগ নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

সূত্রে প্রকাশ, কেরানীহাট হচ্ছে পার্বত্য জেলা বান্দরবানের প্রবেশ পথ। দক্ষিন চট্টগ্রামের মধ্য সর্বোচ্চ রাজস্ব আদায়কারী বাজার হচ্ছে সাতকানিয়ার কেরানীহাট। চলতি সনে প্রায় কোটিরও অধিক টাকায় ইজারা দেওয়া হয়েছে। এর আগের বছরে সরকার রাজস্ব পায় কোটি টাকারও বেশি। রাজস্ব আদায়ের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ হলেও উন্নয়নের ক্ষেত্রে এ গুরুত্বপূর্ণ বাজারটি এখনো অবহেলিতই বলা যায়। গড়ে উঠেনি ড্রেনেজ ব্যবস্থা, নেই পর্যাপ্ত গন শৌচাগার, সামান্য বৃষ্টিতে সড়কের দুই পাশেই জমে থাকা পানির কারনে যাত্রী সাধারণ ও ক্রেতা সাধারণ চলাচলে মারাত্মক অসুবিদার সৃষ্টি হচ্ছে। এ বিষয়ে দৃষ্টি আর্কষণ করা হলে কেরানীহাট প্রগতিশীল ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাষ্টার জয়নাল আবেদীন বলেছেন, কেরানীহাট মাদ্রাসার সিনিয়র শিক্ষক মাওলানা নুরুল হক সিরাজী আমাকে জানিয়েছেন, মাদ্রাসার চলাচলের রাস্তা জমে থাকা পানিতে ডুবে যাওয়ায় শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা মাদ্রাসায় প্রবেশ করতে পারতেছেনা। বিভিন্ন প্রভাবশালী মহল পানি চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দেওয়ার কারনে পানি নিস্কাশন হচ্ছেনা। ব্যবসায়ীদের ক্ষোভের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, নির্বাচনের আগে আমার কোন প্রতিশ্রুতি ছিলনা। আমার বিরুদ্ধে ব্যবসায়ীদের কোন ক্ষোভ নেই। যারা প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ থাকলেও থাকতে পারে। তবে তা আমার জানা নেই। অপরদিকে কেরানীহাট ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সাবেক সহ-সভাপতি ওসমান আলী বলেন, সামান্য বৃষ্টিতেই কেরানীহাটে অচলাবস্থার সৃষ্টি হচেছ। এ সমস্যা সামাধানে সংশ্লিষ্টদের কোন উদ্যেগ পরিলক্ষিক হচ্ছেনা। তবে আমি ও নিউ মার্কেট সমিতির উদ্যেগে পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা করছি। এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে সাতকানিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. জসিম উদ্দিন বলেন, একাধিক ব্যাক্তির আবেদনের প্রেক্ষিতে আমি কেরানীহাটে আর্বজনা ফেলার জন্য ডাস্টবিন ব্যবস্থা করেছি। আরো একাধিক উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড হাতে নিচ্ছি।পর্যায় ক্রমে সকল সমস্যার সামাধান করা হবে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত