টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

জঙ্গি আস্তানা: গ্রেনেড উদ্ধারের ঘটনায় মামলা

চট্টগ্রাম, ০৯ মার্চ ২০১৭ (সিটিজি টাইমস):  চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে জঙ্গি আস্তানা থেকে বিপুল পরিমান গ্রেনেড ও বিস্ফোরকসহ বোমা তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধারের ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। বুধবার রাতে কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক শহীদুল বশর বাদী হয়ে এ মামলাটি দায়ের করেন।

পুলিশ জানায়, মীরসরাই রিদওয়ান মঞ্জিল থেকে গ্রেনেড ও বিস্ফোরকসহ বোমা তৈরির বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধারের ঘটনায় জঙ্গি জসিম উদ্দিন ও মাহমুদুল হাসানসহ আট জনকে আসামি করে মিরসরাই থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়।

এদিকে ঘটনার পর বাড়ির মালিক রিদওয়ানুল হককে আটক করেছে মীরসরাই থানা পুলিশ। জানা যায়, রিদওয়ানুল হক স্থানীয় বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত আছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার (মিরসরাই সার্কেল) মাহবুবুর রহমান বলেন, গ্রেনেড ও বোমা উদ্ধারের ঘটনায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে একটি মামলা দায়ের হয়েছে। তাছাড়াও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ওই বাড়ির মালিককে আটক করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার রাত থেকে বুধবার দুপুর পর্যন্ত চট্টগ্রামের মীরসরাই উপজেলার সদর কলেজ রোডে অবস্থিত রিদোয়ান মঞ্জিল নামের একটি বাড়িতে অভিযান চালায়। অভিযানে ২৯টি হ্যান্ড গ্রেনেড, বোমা তৈরির ৪০টি উপকরণ, ১১ কেজি বিস্ফোরক, ৯টি চাপাতি, বোমা বিস্ফোরণ ঘটানোর মেশিন (ওঊউ), ২৮০ বক্স কার্বণ স্টিল (বেয়ারিং বল) (প্রতি প্যাকেটে ১০০ করে), জঙ্গি পোষাক (৭টি কালো বড় রুমাল ও ৭টি কালো পাঞ্জাবী) আরবীতে লেখা একটি ব্যানারসহ আরো অন্যান্য উপকরণ উদ্ধার করা হয়।

এর আগে মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে কুমিল্লার তীরচর গ্রাম এলাকায় হাইওয়ে পুলিশের একটি চেকপোস্টে বাস থামিয়ে চালকের কাগজ পরীক্ষা করার সময় বাস থেকে দুই ‘জঙ্গি’ নেমে এসে আল্লাহু আকবর বলে দুটি বোমা ছোড়ে। তবে সেগুলো বিস্ফোরিত হয়নি। এসময় জসিম ও মাহমুদুল হাসান নামে আটক করে পুলিশ।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত