টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

আন্তর্জাতিক নারী দিবসে নানা কর্মসূচি

চট্টগ্রাম, ০৮ মার্চ ২০১৭ (সিটিজি টাইমস):  আজ ৮ মার্চ। আন্তর্জাতিক নারী দিবস। সমাজের সর্বস্তরে লিঙ্গ সমতা প্রতিষ্ঠার আহ্বানের মধ্য দিয়ে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মত বাংলাদেশেও যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি পালন করা হচ্ছে। দিবসটি পালনের জন্য বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। এ উপলক্ষে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয় বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।

এবারের নারী দিবসের প্রতিপাদ্য ‘নারী-পুরুষের সমতায় উন্নয়নের যাত্রা, বদলে যাবে বিশ্ব, কর্মে নতুন মাত্রা’।

মন্ত্রণালয়ের পাশাপাশি বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন এবং মানবাধিকার সংস্থাগুলো দিবসটি উপলক্ষে রাজধানীসহ দেশের অন্যান্য জায়গায় সমাবেশ, শোভাযাত্রা, সেমিনার, আলোচনা সভাসহ বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করেছে।

দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া পৃথক বাণী দিয়েছেন। বাণীতে তারা বাংলাদেশসহ বিশ্বের সব নারীকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ তাঁর বাণীতে বলেন, বর্তমান বিশ্বে নারীর অধিকার ও মর্যাদা প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে দিবসটির তাৎপর্য ও গুরুত্ব অপরিসীম। সর্বক্ষেত্রে নারী-পুরুষের অংশীদারত্ব নিশ্চিত করার মাধ্যমে দেশের সার্বিক চিত্র পরিবর্তন করা সম্ভব; যা টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সহায়ক।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর বাণীতে বলেছেন, বর্তমান সরকারের সময়োপযোগী পদক্ষেপে রাজনীতি, বিচার বিভাগ, প্রশাসন, শিক্ষা, চিকিৎসা, সশস্ত্র বাহিনী, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ সর্বক্ষেত্রে নারীরা যোগ্যতার স্বাক্ষর রাখছেন।

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বাংলাদেশসহ বিশ্বের সব নারীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে তাঁদের অব্যাহত সুখ ও সমৃদ্ধি কামনা করেছেন।

দিবসটি উপলক্ষে বাংলাদেশ টেলিভিশন, বাংলাদেশ বেতার এবং অন্যান্য বেসরকারি চ্যানেল বিশেষ অনুষ্ঠানমালা প্রচার করবে। দিবসটির প্রতিপাদ্য তুলে ধরে সংবাদপত্রগুলো বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ করবে।

সকাল ১০টায় মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।

মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, দিবসটি উপলক্ষ্যে মধ্যরাত ১২টা ০১ মিনিটে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মোমবাতি প্রজ্জ্বলনের একটি বিশেষ অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি এই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন।

এছাড়াও নারী দিবস উপলক্ষে ৯ মার্চ মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় কন্যা শিশু এডভোকেসি ফোরাম যৌথভাবে একটি র‌্যালির আয়োজন করা হয়েছে। শাহবাগের পাবলিক লাইব্রেরি থেকে শুরু হয়ে র‌্যালিটি ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে গিয়ে শেষ হবে।

এর পাশাপাশি, টেরে দ্য হোমস (টিডিএইচ নেদারল্যান্ডস) ১০ দিনব্যাপী মানববন্ধন ও আলোচনা সভাসহ বিভিন্ন প্রচারণা চালাবে।

১৮৫৭ সালের ৮ মার্চ যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের সুতা কারখানার একদল শ্রমজীবী নারী মজুরিবৈষম্য, কর্মঘণ্টা নির্ধারণ এবং কর্মক্ষেত্রে বৈরী পরিবেশের প্রতিবাদ করতে গেলে তাদের ওপরে দমন-পীড়ন চালায় মালিকপক্ষ। নানা ঘটনার পরে ১৯০৮ সালে জার্মান সমাজতান্ত্রিক নেত্রী ও রাজনীতিবিদ ক্লারা জেটকিনের নেতৃত্বে প্রথম নারী সম্মেলন করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় ১৯৭৫ সাল থেকে জাতিসংঘ দিনটিকে নারী দিবস হিসেবে পালন করছে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত