টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

বান্দরবান বিএনপি কমিটির নেতৃত্বে সংস্কার পন্থিরা:গন পদত্যাগ

সভাপতি দেশের বাইরে থাকাবস্থায় সম্মেলন ছাড়া

শহীদ ইসলাম বাবর
বিশেষ প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম, ০৩ মার্চ ২০১৭ (সিটিজি টাইমস):: সভাপতি দেশের বাইরে থাকাবস্থায় বান্দরবান বিএনপির রাজনীতিতে বিদ্রোহী গ্রুপ হিসেবে পরিচিতদের নেতৃত্বে রেখে নতুন কমিটি ঘোষনা করার ঘটনায় তীব্র অসন্তোশ বিরাজ করছে। ঘোষিত কমিটিতে নাম থাকা তিন জন উপজেলা চেয়ারম্যান পদত্যাগের ঘোষনা দিয়েছেন। ঘোষিত কমিটির অধীনে দলীয় কার্যক্রম পরিচালনা সম্ভব নয় উল্লেখ করে দল থেকে পদত্যাগ করেছেন জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের বান্দরবান জেলা সভাপতি কাজি নিরু তাজ বেগম,সাধারণ সম্পাদিকা উম্মে কুলসুম সুলতানা লীনা, বান্দরবান জেলা ছাত্র দলের সাধারণ সম্পাদক দৌলতুল কবির খান ছিদ্দিকী, সিনিয়র সহ-সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব, বান্দরবানের লামা উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ন আহবায়ক বাবু মং ও নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা সেচ্ছাসেবক দলের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক নুর মোহাম্মদ। এছাড়াও জেলা বিএনপির আরো একাধিক শীর্ষ নেতা এবং অঙ্গ সংগঠনের নেতারা দল থেকে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। পদত্যাগী নেতা ছাড়াও বান্দরবান জেলা বিএনপির একাধিক নেতা ও তৃণমূল কর্মীর সাথে আলাপ করে এ তথ্য পাওয়া গেছে। দল থেকে পদত্যাগের ঘোষনা দেওয়া উপজেলা চেয়ারম্যানরা হলেন যথাক্রমে আলিকদম উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম, লামা উপজেলা বিএনপির সেক্রেটারী ও উপজেলা চেয়ারম্যান তোয়াই নুঅং ও বান্দরবান উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও বান্দরবান সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুস।

সূত্রে প্রকাশ, গত ২ ফেব্রæয়ারী কেন্দ্র থেকে ঘোষিত কমিটিতে সাবেক সাংসদ মিসেস মাম্যাচিংকে সভাপতি ও বিএনপির গত কমিটির ছাত্র ও বিষয়ক সম্পাদক জাবেদ রেজাকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়। ঘোষিত কমিটিতে স্থান পাওয়া অধিকাংশ নেতাই পদত্যাগ করায় চরম অস্তিরতা চলছে বান্দরবান জেলা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠন সমূহে।

জানা যায়, রাজপত্র সাচিং প্রæ জেরি ও আজিজুর রহমানের নেতৃত্বাধীন বান্দরবান জেরা বিএনপির কমিটি সম্মেলন করে নতুন নেতৃত্ব নির্ধারণ করার জন্য ওয়ার্ড়, ইউনিয়ন, পৌরসভা ও উপজেলা বিএনপির সম্মেলন সমাপ্ত করে জেলা সম্মেলনের তারিখ ধার্য করেছিল। কিন্তু কেন্দ্র থেকে সেই সম্মেলন স্থগিত করে কেন্দ্রীয় নির্দেশনায় ১৭ নভেম্বর একটি প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত প্রতিনিধি সভায় বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান সামসুজ্জামান দুদু প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। সেই সম্মেলনে উপস্থিত কাউন্সিলররা কাউন্সিলের মাধ্যমে কমিটি ঘোষনার দাবী জানান। কিন্তু তৃনমূলের চাওয়াকে কোন ধরনে মূল্যয়ান না করে গত ২ ফেব্রæয়ারী মাম্যাচিংকে সভাপতি ও জাবেদ রেজাকে সাধারণ সম্পাদক করে আংশিক কমিটি ঘোষনা করা হয়। জাতীয়তাবাদী মহিলা দল থেকে পদত্যাগ করা বান্দরবান জেলা মহিলা দলের সভাপতি কাজি নিরু তাজ বেগম বলেন, সাচিং প্রæ আর আজিজুর রহমানের নেতৃত্বে আমরা আওয়ামীলীগের দু:শাসনের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত লড়ছি। কিন্তু দলের জন্য নিবেদিত, কর্মঠ ও কর্মী বান্ধব নেতাদের বাদ দিয়ে আওয়ামীলীগের সহযোগি হিসেবে পরিচিতদের দিয়ে পকেট কমিটি করায় আমি আমার পদ থেকে পদত্যাগ করছি। কারন সেই কমিটির অধিনে আমাদের দলীয় কার্যক্রম পরিচালনা সম্ভব নয়।

কমিটি ঘোষনার বিষয়ে বান্দরবান জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আজিজুর রহমান বলেন, আমরা সাচিং প্রæ জেরির নেতৃত্বে আওয়ামী দু:শাসনের বিরুদ্ধে কেন্দ্র ঘোষিত সকল কর্মসূচী বাস্তবায়ন করেছি। এসব কর্মসূচী বাস্তবায়ন করতে গিয়ে আমাদের অনেক নেতা হামলা, মামলার শিকার হয়েছ্ েএখনো অনেকে কারাগারে বন্দি অবস্থায় দিনাতিপাত করছে। এহেন সময়ে আওয়ামীলীগের সহায়ক শক্তি হিসেবে পরিচিতদের দিয়ে পকেট কমিটি করায় তৃনমূলে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। এ কমিটির অনেক নেতা ইতিমধ্যে পদত্যাগ করেছে। অঙ্গ সংগঠনের অনেক নেতাও পদত্যাগ করেছে। কেন্দ্র যদি মনে করে থাকে যে, বিএনপিতে আমাদের প্রয়োজন নেই তাহলে বিএনপি করবনা। আমাদের প্রয়োজন মনে করলে এ কমিটি বাতিল করে সকলের মতামতের ভিত্তিতে কমিটি করতে হবে। আপনাদের পরবর্তি কর্মসূচী কি হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের দলের সভাপতি রাজ পুত্র সাচিং প্রু জেরি বর্তমানে দেশের বাইরে (থাইল্যান্ড) অবস্থান করছে। তার সাথে যোগাযোগ করে পরবর্তি কর্মপন্থা নির্ধারণ করা হবে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত