টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির নিবার্চন: দুই প্যানেলের সভাপতি-সম্পাদক প্রার্থী চূড়ান্ত

ইমাম খাইর
কক্সবাজার ব্যুরো

চট্টগ্রাম, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ (সিটিজি টাইমস):: জেলা আইনজীবী সমিতির বার্ষিক কার্যনির্বাহী পরিষদের নিবার্চন আগামী ২৫ ফেব্রুয়ারি শনিবার। সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ১৭ পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ মনোনীত প্যানেল এবং বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত জাতীয়তাবাদী, ইসলামী মূল্যবোধে বিশ্বাসী সমমনা আইনজীবীদের মনোনীত প্যানেলে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়েছে।

আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্যানেল থেকে সভাপতি পদে এডভোটেক মোহাম্মদ ইছহাক ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে জিয়া উদ্দিন আহমদকে চূড়ান্ত করা হয়েছে।

অন্যদিকে বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত প্যানেলে সভাপতি পদে এস.এম নুরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক পদে আকতার উদ্দিন হেলালীকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে।

এই প্যানেল থেকে সহ-সভাপতির ২টি পদে এডভোকেট ছাদেক উল্লাহ ও এডভোকেট রমিজ আহমদ চূড়ান্ত হয়েছে।

দুই প্যানেলের বাদ বাকী পদগুলোর বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়নি। আজ সকালে চূড়ান্ত করা হবে বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) রাতে প্রার্থী চূড়ান্ত করতে বৈঠকে বসেন দুই প্যানেলের নীতি নির্ধারকেরা। বৈঠকে আইনজীবীদের কাছ থেকে উম্মুক্ত ভোট আহবান করা হয়। শেষে সর্বোচ্চ ভোটের ভিত্তিতে প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করা হয়।

জেলা আইনজীবী সমিতি সুত্র জানায়, ২০১৭ সালের কার্যনির্বাহী পরিষদ নির্বাচনের মনোনয়নপত্র দাখিলের সময় আজ (১৫ ফেব্রুয়ারি বেলা ২টা থেকে ৪টা পর্যন্ত। বাছাই ও বৈধ তালিকা প্রকাশ ১৫ ফেব্রুয়ারি, প্রত্যাহার ১৯ ফেব্রুয়ারি, চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ ২০ ফেব্রুয়ারি। ভোট গ্রহণ ২৫ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত। প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন এম. শাহজাহান এডভোকেট।

২০১৬ সালের বর্ষের কার্যনির্বাহী পরিষদের নির্বাচন ২৭ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হয়। এতে দুই প্যানেলেই যৌথভাবে সভাপতি নির্বাচিত হন মোহাম্মদ ইছহাক ও আবুল কালাম ছিদ্দিকী। আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্যানেল থেকে আ.জ.ম মঈন উদ্দিন সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন। প্রসঙ্গত, জেলা আইনজীবী সমিতি ১৯০১ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। সমিতির বর্তমান সদস্য সংখ্যা ৬৫২ জন। সেখানে নতুন অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন ৬৭ জন।

আইনজীবীরা মনে করেন, কর্মদক্ষ, সাহসী, জুনিয়র আইনজীবীদের চেম্বার সংকট নিরসনে নতুন ভবন নির্মানে, জমির লীজ ডীড় স¤পাদন, প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত পাঁচ কোটি টাকা আনয়ন, বেঞ্চ সংশ্লিষ্ট কর্মচারীদের দূর্নীতির লাগাম টেনে ধরা, বার ও বেঞ্চের মর্যাদাপূর্ণ স¤পর্ক সমুন্নত রেখে বিচারপ্রার্থী অসহায় জনসাধারনের ন্যায় বিচার প্রাপ্তিতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ পরীক্ষিত আইনজীবীদের নির্বাচিত করা দরকার।

এদিকে সভাপতি পদে দুই প্যানেলের প্রার্থী নিয়ে বেশী বিশ্লেষন না থাকলেও সাধারণ সম্পাদক প্রার্থীরা আলোচনায় স্থান পেয়েছে।

বিএনপি-জামায়াতের প্যানেলের সাধারণ সম্পাদকপ্রার্থী এডভোকেট আকতার উদ্দিন হেলালী ১৯৯৬ সাল থেকে আইন পেশায় নিয়োজিত রয়েছেন। গত নির্বাচনে তিনি সর্বোচ্চ ভোটে সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। ২০১১ সালে তিনি সহ-সাধারণ সম্পাদক (হিসাব) পদে দায়িত্ব পালন করেন। আদালতাঙ্গনে তার সুনাম রয়েছে।

অন্যদিকে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্যানেল থেকে সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী এডভোকেট জিয়া উদ্দিন আহমদ ২০০২ সাল থেকে সুনামের সাথে আইন পেশায় নিয়োজিত আছেন। তার পিতা মরহুম নূর আহমদও জনপ্রিয় ও প্রসিদ্ধ আইনজীবী ছিলেন। এডভোকেট জিয়া উদ্দিন আহমদ ২০১২ সালে জেলা আইনজীবি সমিতির সহ-সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। এর আগের দুই বারের নির্বাচনে আপ্যায়ন সম্পাদক এবং সদস্য পদে নির্বাচিত হন। তরুণ আইনজীবী হিসেবে তিনি বেশ ভাল অবস্থান তৈরী করতে সক্ষম হয়েছেন বলে অনেকে মনে করছেন।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত