টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

‘২০১৯ সালের মধ্যে ২ লাখ ৮০ হাজার পরিবারের পুনর্বাসন হবে’

চট্টগ্রাম, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ (সিটিজি টাইমস)::  প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ২০১৯ সালের মধ্যে সারাদেশের ২ লাখ ৮০ হাজার গৃহহীন পরিবারকে পুনর্বাসন করা হবে।

সরকারি দলের সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারীর এক প্রশ্নের জবাবে সংসদ কার্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী জাতীয় সংসদকে এ কথা জানান।

মন্ত্রী বলেন, প্রাথমিকভাবে চলতি ২০১৬-১৭ অর্থবছরে আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের মাধ্যমে ১৫ হাজার গৃহহীন পরিবারকে পুনর্বাসন করা হবে। আগামী ২০১৭-১৮ অর্থবছরে গৃহহীন পরিবারকে নিজ জমিতে ঘর করে দেওয়া হবে এবং ২০ হাজার ভূমিহীন পরিবারকে ব্যারাকে পুনর্বাসন করা হবে। এরপর ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ১ লাখ ১০ হাজার গৃহহীন পরিবারকে নিজ জমিতে ঘর করে দেওয়া হবে এবং ২০ হাজার ভূমিহীন পরিবারকে আশ্রয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে ব্যারাকে পুনর্বাসন করা হবে।

তিনি বলেন, আশ্রয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে ১৯৯৭ সাল থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত তিনটি ফেইজে ১ লাখ ৪০ হাজার পরিবারকে পুনর্বাসন করা হয়েছে। বর্তমানে চলমান আশ্রয়ন-২ প্রকল্পটির মেয়াদকাল ২০১০-১৭ সাল। এ মেয়াদে ৫০ হাজার পরিবার পুনর্বাসন করা হবে। এ পর্যন্ত ৪০ হাজার ভূমিহীন, গৃহহীন পরিবারকে পুনর্বাসন করা হয়েছে।

মতিয়া চৌধুরী বলেন, ২০১৯ সালের মধ্যে সব গৃহহীনকে ঘর করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে আশ্রয়ন প্রকল্প থেকে ২ দশমিক ১০ লাখ পরিবার পুনর্বাসন করা হবে। এ কারণে প্রকল্পের মেয়াদ ২০১৯ সাল পর্যন্ত বাড়ানোর পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। বর্তমান যার সামান্য জমি আছে; কিন্তু ঘর তৈরি করার সামর্থ্য নেই- সে সব পরিবারকে তাদের নিজ জমিতে ঘর নির্মাণ করে দেওয়া হবে; এর জন্য প্রতি ঘরের জন্য ব্যয় হবে ১ লাখ টাকা। এছাড়া এই কর্মসূচির আওতায় ২০১৯ সালের মধ্যে ১ লাখ ৭০ হাজার গৃহহীন পরিবারকে নিজ জমিতে ঘর তৈরি করে দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ভূমিহীন, গৃহহীন, ছিন্নমূল অসহায় মানুষদের জন্য আশ্রয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে উপকূলীয় এলাকায় ৫ ইউনিটের পাকা ব্যারাক ও দেশের অন্যান্য এলাকায় ৫ ইউনিটের সেমি পাকা ব্যারাক নির্মাণ করা হচ্ছে। এছাড়া নদী ভাঙ্গন প্রবণ এলাকায় সহজে স্থানান্তরযোগ্য সিআই সিট ব্যারাক নির্মাণ করা হচ্ছে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত