টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু

চট্টগ্রাম, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ (সিটিজি টাইমস): দেশের ১০টি শিক্ষাবোর্ডের অধীনে এসএসসি, দাখিল ও এসএসসি (ভোকেশনাল) পরীক্ষা শুরু হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার এ পরীক্ষায় ৩ হাজার ২৩৬টি কেন্দ্রে ২৮ হাজার ৩৪৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ১৭ লাখ ৮৬ হাজার ৬১৩ জন শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৯ লাখ ১০ হাজার ৫০১ জন ছাত্র ও ৮ লাখ ৭৬ হাজার ১১২ জন ছাত্রী।

২০১৬ সালের তুলনায় ২০১৭ সালে পরীক্ষার্থী বেড়েছে ১ লাখ ৩৫ হাজার ৯০ জন। আর ৯৩টি পরীক্ষা কেন্দ্র বাড়ানো হয়েছে। এর মধ্যে বিদেশে ৪৪৬জন পরীক্ষার্থীর জন্য ৮টি পরীক্ষা কেন্দ্র রয়েছে।

এ বছর নিয়মিত পরীক্ষার্থী ১৬ লাখ ৭ হাজার ১২৪ জন। অনিয়মিত পরীক্ষার্থী রয়েছে ১ লাখ ৭৬ হাজার ১৯৮ জন। বিশেষ পরীক্ষার্থীর সংখ্যা (সর্বোচ্চ ৪ বিষয়ে পরীক্ষা দেবে) ১ লাখ ৪৫ হাজার ২৯৮ জন। ৭ লাখ ২ হাজার ২৯৯ জন ছাত্র ও ৭ লাখ ২৩ হাজার ৬০১জন ছাত্রী এবারের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। ছাত্রের তুলনায় ছাত্রী ২১ হাজার ৩০২ জন বেশি।

দাখিলে ছাত্র ১ লাখ ৩০ হাজার ৫৮৫ জন ও ছাত্রী ১ লাখ ২৫ হাজার ৯১৬ জন এবং এসএসসি ভোকেশনালে ছাত্র ৭৭ হাজার ৬১৭জন ও ছাত্রী ২৬ হাজার ৫৯৫ জন ।

তত্ত্বীয় পরীক্ষা শেষ হবে আগামী ২ মার্চ। এরপর ৪ মার্চ থেকে ব্যবহারিক পরীক্ষা শুরু হয়ে ১১ মার্চ শেষ হবে। এ বছর বিজ্ঞান বিভাগে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা হচ্ছে ৪ লাখ ২২ হাজার ২৮৭জন। এ বছর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি এবং কারিগরি শিক্ষা নামে দুইটি নতুন বিষয় যুক্ত হয়েছে।

শিক্ষাবোর্ডের নির্দেশনায় বলা হয়েছে, প্রতিদিন সকাল সাড়ে ৯টার মধ্যে সব পরীক্ষার্থীর হাতে খাতা দেওয়া হবে। এরপর ওএমআর পূরণ করতে ৩০ মিনিট সময় পাবে তারা।

কেন্দ্র সচিব ছাড়া আর কোনো ব্যাক্তি পরীক্ষা কেন্দ্রে মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবেন না। কেন্দ্র সচিবের অনুমতি ছাড়া কেউ পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ করতে পারবেন না।

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে , দেশের বাইরে জেদ্দা, রিয়াদ, ত্রিপোলি, দোহা, আবুধাবী, দুবাই, বাহরাইন এবং ওমানের সাহামে ৮টি পরীক্ষা কেন্দ্র রয়েছে।

এ বছর এসএসসি পরীক্ষায় বাংলা ২য় পত্র এবং ইংরেজি ১ম ও ২য় পত্র ছাড়া সব বিষয়ে সৃজনশীল প্রশ্নে পরীক্ষা নেওয়া হবে। দৃষ্টি প্রতিবন্ধী, সেরিব্রালপালসিজনিত প্রতিবন্ধী এবং যাদের হাত নেই এমন প্রতিবন্ধী পরীক্ষার্থী স্ক্রাইব (শ্রুতি লেখক) সঙ্গে নিয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। এ ধরনের পরীক্ষার্থীদের এবং শ্রবণ প্রতিবন্ধী পরীক্ষার্থীদের জন্য অতিরিক্ত ৩০ মিনিট সময় বৃদ্ধি করা হয়েছে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত