টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

চট্টগ্রামে ৪০ বসতঘর ১২ ভাসমান দোকান উচ্ছেদ

চট্টগ্রাম, ৩০ জানুয়ারি ২০১৭ (সিটিজি টাইমস): বন্দরনগরী চট্টগ্রামে পৃথক অভিযানে ৪০ বসতঘর ১২ ভাসমান দোকান উচ্ছেদ করা হয়েছে।

সোমবার নগরীর পাহাড়তলী এলাকায় অবৈধভাবে গড়ে ওঠা ৪০টি বসতঘর উচ্ছেদ করেছে রেলওয়ে। রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের বিভাগীয় ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তা ইশরাত রেজা অভিযান পরিচালনা করে এসব ঘর উচ্ছেদ করেন। তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে পাহাড়তলীতে রেলওয়ে কর্মচারীদের এ কলোনিতে অবৈধভাবে ঘর তুলে কিছু পরিবার বসবাস করে আসছিল। অভিযানে ২৫টি টিনের ঘর ও ১৫টি সেমিপাকা ঘর উচ্ছেদ করা হয়।

অপরদিকে,  চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (সিসিসি) ভ্রাম্যমাণ আদালত নগরীতে ১২টি ভাসমান দোকান উচ্ছেদ এবং বিভিন্ন দোকানকে প্রায় ৪৬ হাজার টাকা জরিমানা করেছে।

সোমবার সিসিসির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সনজিদা শরমিন এর নেতৃত্বে হালিশহর থানার বড়পোল এলাকায় অভিযান পরিচালিত হয়।তিনি বলেন, বড়পোলে পোর্ট কানেকটিং সড়কের পাশে ফুটপাত ও নালার উপর অবৈধভাবে বসা ১২টি ভাসমান দোকান ‍উচ্ছেদ করা হয়। এসময় ট্রেড লাইসেন্স না থাকায় ওই এলাকার জেরিন স্টোরকে পাঁচ হাজার টাকা এবং মূল্য তালিকা না টাঙ্গানোয় লাইফ লাইন ডায়গনস্টিক সেন্টারকে দুই হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।একই অভিযান দল নগরীর পাঁচলাইশ থানার মুরাদপুর এলাকায় ট্রেড লাইসেন্স না থাকায় গুলজার হোটেলকে পাঁচ হাজার টাকা, আতুরার ডিপোর খাজা ট্রেডার্সকে তিন হাজার টাকা এবং ট্রেড লাইসেন্স নবায়ন না করায় নিউ বার আউলিয়া হোটেলকে দুই হাজার টাকা জরিমানা করে।এছাড়া তাৎক্ষণিকভাবে লাইসেন্স নবায়ন করায় অন্য চারটি প্রতিষ্ঠানকে মোট এক হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এদিকে সিসিসির আরেক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট যুথিকা সরকারের নেতৃত্বে অন্য একটি ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালিত হয়। এসময় ডবলমুরিং থানার চৌমুহনী কর্ণফুলী মার্কেটে ট্রেড লাইসেন্স ও নবায়ন না থাকায় ১৬টি প্রতিষ্ঠানকে মোট ২৮ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

মতামত