টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

১২ বিশিষ্টজনের সঙ্গে সার্চ কমিটির বৈঠক বিকালে

চট্টগ্রাম, ৩০ জানুয়ারি ২০১৭ (সিটিজি টাইমস):  নির্বাচন কমিশনে নিয়োগের জন্য সুপারিশ করতে গঠন করা সার্চ কমিটি আজ বৈঠকে বসতে যাচ্ছে বিশিষ্ট ১২ নাগরিকের সঙ্গে। বিকাল চারটায় সুপ্রিম কোর্টের জাজেস লাউঞ্জে এই বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। গত শনিবার সার্চ কমিটির প্রথম বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়।

ওই বৈঠক শেষে সার্চ কমিটির সাচিবিক দায়িত্ব পালন করা মন্ত্রিপরিষদ মোহাম্মদ শফিউল আলম জানান, নির্বাচন কমিশনে নিয়োগের জন্য সুপারিশ চূড়ান্ত করতে রাজনৈতিক দলের কাছেঠ পাঁচটি করে নাম চাওয়ার পাশাপাশি বিশিষ্ট নাগরিকদের সঙ্গে বৈঠক করবে।

বিশিষ্ট নাগরিকরা হলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই সাবেক উপাচার্য এ কে আজাদ চৌধুরী ও এস এম ফায়েজ, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ও মানবাধিকার কর্মী সুলতানা কামাল, সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার এ টি এম শামসুল হুদা, সাবেক দুই নির্বাচন কমিশনার ছহুল হোসেন ও সাখাওয়াত হোসেন, স্থানীয় সরকার বিশেষজ্ঞ তোফায়েল আহমেদ, সুশাসনের জন্য নাগরিক-সুজনের সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও শিক্ষাবিদ সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী ও আবুল কাসেম ফজলুল হক, পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক নুরুল হুদা এবং অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি আবদুর রশিদ।

এরই মধ্যে এদের সবার সঙ্গে যোগাযোগ হয়েছে। আর বিভিন্ন গণমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বৈঠকে অংশ নিতে আগ্রহের কথা জানিয়েছেন বিশিষ্টজনরা।

যোগাযোগ করা হলে স্থানীয় সরকার বিশেষজ্ঞ তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘অবশ্যই গিয়ে আমার কথা বলবো।’

সুশাসনের জন্য নাগরিক-সুজনের সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার বিষয়টিকে ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন। তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন নিয়ে আমার বিভিন্ন পর্যবেক্ষণ রয়েছে, তা আমি বৈঠকে তুলে ধরবো। মনে হচ্ছে সার্চ কমিটির আন্তরিকতার অভাব নেই। অনেক কিছু নির্ভর করবে সরকারের ওপর। এখন সরকারকেও আন্তরিক হতে হবে।’

সাবেক নির্বাচন কমিশনার সাখাওয়াত হোসেন বলেন, ‘সার্চ কমিটি যে উদ্যোগ নিয়েছে সেটা প্রশংসীয়। এটা নিয়ে নতুন করে কিছু বলার কিছু নেই। তারা আমাদের কাছে কী ধরনের পরামর্শ চায় সেটা আগে আমাদের জানতে হবে। তারপর আমরা এ বিষয়ে বলতে পারবো।’

সাবেক নির্বাচন কমিশনার ছহুল হোসাইন বলেন, ‘সৎ, যোগ্য এবং নিরপেক্ষ ব্যক্তি নির্বাচন করা খুবই চ্যালেঞ্জিং একটা বিষয়। কিন্তু তারপরও আশা করি আমরা পারবো।’ তিনি আরও বলেন, ‘সার্চ কমিটি আমার পরামর্শ চাইলে দেব। চিঠি পেলে আমরা যাবো সেখানে’।

আগামী মাসের শুরুতেই শেষ হচ্ছে কাজী রকিবউদ্দীন আহমেদের নেতৃত্বে নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ। তার আগেই কমিশনে নিয়োগ চূড়ান্ত করবেন রাষ্ট্রপতি। আর ৩১টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপ শেষে গত বুধবার তার নির্দেশে গঠন হয় ছয় সদস্যের সার্চ কমিটি। তাদেরকে ১০ কার্যদিবসের মধ্যে সুপারিশ করতে বলা হয়েছে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত