টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

প্রযুক্তির খেয়ায় বৈঠা বাইছে চট্টগ্রামের ডিজিটাল মেলা

অাল-অামিন সিকদার
নিজস্ব প্রতিবেদক, সিটিজি টাইমস

চট্টগ্রাম, ২১ জানুয়ারি ২০১৭ (সিটিজি টাইমস):: প্রযুক্তির খেয়ায় যেন বৈঠা বাইছে চট্টগ্রামে অায়োজিত ডিজাটাল মেলার স্টল গুলো। বাংলাদেশকে বলা হয় ডিজাটাল দেশ। অার এই দেশকে ডিজাটালে পরিনত করতে নানান পদক্ষেপ গ্রহণ করছে সরকার, দিচ্ছে নানা খাতে সহযোগিতা।

তারই ধারাবাহিকতায় উন্নত প্রযুক্তির হাত ধরে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে ডিজাটলের পথ ধরে। অার এই ডিজাটাল দেশে প্রযুক্তির হাত ধরে চট্রগ্রামও পাড়ি দিয়েছে অনেকটা পথ যার সংক্ষিপ্ত ব্যাখাসহ উদাহরণ হল নগরীর এম এ অাজিজ স্টেডিয়ামের জিমনেশিয়াম মাঠে অায়োজিত ডিজাটল মেলা।

মেলায় অংশ গ্রহণ করা সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের নিজ নিজ সংস্থায় যেসকল উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করছে তার সম্পর্কিত তথ্য ও এর ব্যবাহারের সুফল তুলে ধরছে দর্শনার্থীদের কাছে।

মেলার সরেজমিনে গিয়ে স্টল গুলো ঘুরে প্রতিবেদক কেনই বা বলেছেন ‘প্রযুক্তির খেয়ায় বৈঠা বাইছে চট্টগ্রামের ডিজাটল মেলা’ সে সম্পর্কে পাঠকদের কাছে কিছু তথ্য তুলে ধরা হল।

মেলায় অংশ গ্রহণ করা পুলিশ স্টল থেকে সিটিজি টাইমসকে ইন্সপেক্টর উৎপল জানায়, চট্টগ্রাম মোট্রো পলিটন পুলিশ উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে ২৮ টি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে ১০৬ টি সিসি ক্যামেরা ধারা নজরদারি করছে। এছাড়া এই নজরদারীর পরিসীমা বৃদ্ধি ও অপরাধ কমাতে অারো ৫০টি উন্নতমানের অাইপি সিসি ক্যামেরা নিয়ে নগরীর অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট গুলোও পুলিশি নজরদারীর অাওতায় অানা হবে।


এছাড়াও চট্টগ্রাম পুলিশের নতুন অ্যাপ ব্যবহার করে জনগণ অভিযোগ থেকে শুরু করে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স এর সুবিধা পাবে। এতে করে জনগন খুব সহজেই পুলিশি সেবা গ্রহণ করতে পারবে।

চট্টগ্রাম বন্দর স্টল থেকে অাবু বকর ছিদ্দিক জানায়, বন্দরের অাওতাধীন সকল টেন্ডার পক্রিয়াও এখন ই-টেন্ডারিং এর মাধ্যমে অনলাইনে পরিচালনা করা হচ্ছে। যার ফলে টেন্ডারবাজদের কবল থেকে রেহায় পাবে বন্দর।

এছাড়াও বন্দর অাওতাধীন স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসা অটোমশনের মাধ্যমে পরিচালনা সহ বন্দরের বিভিন্ন খাতে ডিজাটাল প্রযুক্তির ব্যবহার করছে বন্দর কর্তৃপক্ষ।

সম্প্রতি বন্দরের নিয়োগ পক্রিয়াতেও এই প্রথম চালু করা হয় অনলাইন পদ্ধতি।

মেলায় অংশ গ্রহণ করা চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট স্টলে কম্পিউটার বিভাগের ৭ম পর্বের শিক্ষার্থী সুজন, ফয়সাল ও কৌশিক নিয়ে এসেছে দেশের শক্তিকে অারো সমৃদ্ধি করতে এক সিকিউরিটি রোবোর্ট। এই রোবোর্টির মাধ্যমে দেশের শান্তি রক্ষা বাহিনী যুদ্ধে গোপনে শত্রুর অবস্থান ও তাদের শক্তি সম্পর্কে ধারণা সহ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বোমা নিক্ষেপণও করতে সক্ষম হবে। যার ফলে যুদ্ধে অংশ নেওয়া সৈনিকরা অতি সহজে শত্রু ঘায়েলের মূল নকশা তৈরী করতে পারবে।

মেলা কমিটির পক্ষ থেকে সিটিজি টাইমসকে জানানো হয় অাজ শনিবারসহ অাগামী দুই দিন সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত চলবে এই ডিজাটাল মেলা।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত