টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

নাইক্ষ্যংছড়িতে অভিযান, টেকনাফে লুট হওয়া অস্ত্র উদ্ধার

চট্টগ্রাম, ০৯  জানুয়ারি ২০১৭ (সিটিজি টাইমস):: কক্সবাজারে গ্রেপ্তার হওয়া দুই রোহিঙ্গাকে নিয়ে বান্দবানের নাইক্ষ্যংছড়ির পাহাড়ে অভিযান চালিয়ে ১০টি অস্ত্র ও ১৮৯ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে র‌্যাব।

মঙ্গলবার ভোর থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত নাইক্ষ্যংছড়ির তুমব্রুর গহীন পাহাড়ে অভিযান চালিয়ে মাটির নিচ থেকে এ সব অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়। এ সময় এক রোহিঙ্গাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

উদ্ধারকৃত অস্ত্র ও গুলির মধ্যে রয়েছে ২০১৬ সালের ১৩ মে টেকনাফের নয়াপাড়া আনসার ক্যাম্পে হামলা চালিয়ে লুট হওয়া পাঁচটি অস্ত্র ও ১৮৯ রাউন্ড গুলি।

এর আগে সোমবার রাতে উখিয়ার কুতুপালং এলাকা থেকে রোহিঙ্গা খাইরুল আমিন ও মাস্টার আবুল কালাম আজাদকে একটি পিস্তাল ও একটি ওয়ান শুটারগানসহ গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। তাদের নিয়ে অভিযান চালিয়ে মোহাম্মদ হাসান নামে আরো একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এদিকে দুপুর ১টায় নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার তুমব্রু গহীন পাহাড়ে অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ ও আনসারের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. মিজানুর রহমান খান।

র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ বলেন, ‘গ্রেপ্তারকৃত রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের স্বীকারোক্তিতে মঙ্গলবার ভোর থেকে র‌্যাব সদস্যরা বান্দরবারের নাইক্ষ্যংছড়ির গহীন পাহাড়ে অভিযান চালায়। এ সময় ১০টি অস্ত্র, ১৮৯ রাউন্ড গুলি ও ২৬ রাউন্ড বন্দুকের কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে টেকনাফে লুট হওয়া পাঁচটি অস্ত্র ও ১৮৯ রাউন্ড গুলি রয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, টেকনাফে আনসার ক্যাম্পে হামলা চালিয়ে লুট হওয়া বাকি অস্ত্রগুলোও এখানে রয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আশা করি, বাকি অস্ত্রগুলোও পাওয়া যাবে।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালে ১৩ মে টেকনাফের নয়াপাড়া আনসার ক্যাম্পে হামলা করে আনসার কমান্ডার আলী হোসেনকে হত্যা করা হয়। এ সময় ১১টি আগ্নেয়াস্ত্র ও ৬৭০ রাউন্ড গুলি লুট করা হয় ।

মতামত