টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে মানিকছড়িতে বর্ণাঢ্য আয়োজন

আবদুল মান্নান
মানিকছড়ি প্রতিনিধি 

চট্টগ্রাম, ০৪ জানুয়ারি ২০১৭ (সিটিজি টাইমস)::  বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে মানিকছড়িতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে দিবসটি পালিত হয়েছে। কেক কাটা, দলীয় ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন, আলোচনা সভা, শোভা যাত্রা ও কনসার্টের মধ্য দিয়ে উপজেলা ছাত্রলীগ দিবসটি পালন করেছে।

উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা মো. সাইফুল ইসলাম এর সঞ্চলনায় এবং ছাত্রলীগ সভাপতি মো. আলমগীর হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্টিত প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর নানা আয়োজনের মধ্যে বিকাল ৩টায় উপজেলা টাউন হল চত্বরে প্রথম দলীয় ও জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে কর্মসূচী শুরু হয়। অনুষ্ঠানে আগত ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও আওয়ামীলীগের উপজেলা থেকে তৃণমূলের নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে অতিথিরা ছাত্রলীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর কেক কাটেন। এ সময় নেতা-কর্মীদের শ্লোগানে অনুষ্ঠানস্থল মূখরিত হয়ে উঠে। পরে শুরু হয় আলোচনা সভা। এতে বক্তব্য রাখেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মোস্তফা কামাল, কলেজ ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক মো. হাসান, সভাপতি রাজীব কুমার নাথ, কর্মসূচী বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক মো. আসাদুল ইসলাম, যুবলীগ নেতা মো. জাহাঙ্গীর আলম, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জাহেদুল আলম মাসুদ, সহসভাপতি মো. সামায়ন ফরাজী সামু,উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি মো. শাহ আলম, আওয়ামীলীগ নেত্রী শাহানাজ বেগম, পপি তালুকদার, আওয়ামীলীগ নেতা মো. রফিকুল ইসলাম বাবুল, এম.ই. আজাদ চৌধুরী বাবুল, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. সফিউল আলম চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক মো.মাঈন উদ্দীন, সভাপতি মো. জয়নাল আবেদীন, সদও ইউপি চেয়ারম্যান ও দলের সহ-সভাপতি মো. শফিকুর রহমান ফারুক,উপজেলা চেয়ারম্যান ম্্রাগ্য মারমা, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্ঠা মন্ডলীর সদস্য এম.এ. রাজ্জাক।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্ঠা মন্ডলীর সদস্য এম.এ. রাজ্জাক বলেন, এদেশে যদি ছাত্রলীগের জন্ম না হতো তাহলে এদেশ স্বাধীন হতো না। আজ থেকে ৬৯ বছর আগে ১৯৪৮ সালের এ দিনে(৪ জানুয়ারী) ছাত্রলীগের জন্ম হয়। আজ ছাত্রলীগের কিছু সংখ্যক নেতা-কর্মীদের কর্মকান্ড আপত্তিজনক। ছাত্রলীগের ছেলেদের হাতে ইয়াবা,মদ, অস্ত্রবাজি ও চাঁদাবাজি বেমানান। ছাত্রলীগের প্রতিটি নেতা-কর্মীর চরিত্র ফুলের মত পবিত্র হতে হবে। তাহলেই জাতি ছাত্রলীগকে সন্মান করবে। তিনি সকল নেতা-কর্মীকে চরিত্রবান হওয়ার আহব্বান করেন।

পরে সভাপতির সমাপনী বক্তব্যের মধ্য দিয়ে আলোচনা পর্ব শেষ করা হয়। সন্ধ্যা ৬টায় শুরু হয় কনসার্ট।

মতামত