টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

আত্মঘাতী নারী ‘জঙ্গি’ নিয়ে উদ্বিগ্ন সরকার: ওবায়দুল কাদের

চট্টগ্রাম, ২৭ ডিসেম্বর, সিটিজি টাইমস:: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, জঙ্গিদের আত্মঘাতী হওয়ার নতুন ধরন বা কৌশল নিয়ে সরকার উদ্বিগ্ন, তবে আমরা শঙ্কিত নই। জঙ্গিদের আত্মঘাতী হওয়ার এ নতুন কৌশল আমাদের সতর্ক হওয়ার নতুন বার্তা।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

গত শনিবার রাজধানীর পূর্ব আশকোনার নিজের গায়ে লাগানো সুইসাইড জ্যাকেটের বোতাম টিপে নিজেকে আত্মঘাতী হন এক নারী জঙ্গি। এ ঘটনা বাংলাদেশে এই প্রথম। সম্প্রতি মাথা চাড়া দিয়ে ওঠা জঙ্গি গোষ্ঠীগুলোর সঙ্গে যে নারীরাও যুক্ত হয়ে পড়ছেন সেটি নতুন তথ্য নয়। কিন্তু এই প্রথম কোনো নারী জঙ্গি এভাবে আত্মঘাতী বোমা হামলা চালিয়ে প্রাণ হারালেন।

জঙ্গি দমন নিয়ে আওয়ামী লীগ নাটক করছে বলে বিএনপি যে অভিযোগ করেছে সেটিকে উড়িয়ে দিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘নাটক আওয়ামী লীগ করে না। এটা আওয়ামী লীগের ইতিহাসে নেই। বরং নাটক করছে বিএনপি। আর এই নাটকে বিএনপিকেই মানায়। কারণ নাটক করা তাদের কাজ।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ নাটক করে উন্নয়নকে কোনোভাবেই বাধাগ্রস্ত করতে চাইবে না। এটা ওনাদের বোঝা উচিত।’

সাংবাদিকদের সঙ্গে অনানুষ্ঠানিক এই আলাপে সমসাময়িক রাজনীতির বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ মতামতও তুলে ধরেন ক্ষমতাসীন দলটির সাধারণ সম্পাদক।

জেলা পরিষদ নির্বাচনে কালোটাকার ছড়াছড়ি হচ্ছে- এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘পৃথিবীর সব দেশে নির্বাচনের আগে কালো টাকার ছড়াছড়ি হয়। বাংলাদেশেও জেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীরা অতিরিক্ত টাকা ব্যয় করছেন বলে খবর আছে। তবে এ বিষয়ে নির্বাচনী আচরণ বিধি মেনে চলা উচিত বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এ সময় তিনি জেলা পরিষদ নির্বাচন সুষ্ঠু করতে নির্বাচন কমিশনের আচরণ বিধি অনুযায়ী সব মন্ত্রী-এমপিদের এলাকা ছেড়ে চলে আসার অনুরোধ জানান।

সেতুমন্ত্রী বলেন, নির্বাচন কমিশন নিয়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে আইন প্রণয়নের বিষয়ে যে দাবি তোলা হয়েছে সে বিষয়ে আমরাও একমত। আমরাও আইন করার প্রস্তাব রাষ্ট্রপতিকে দেবো।

জেলা পরিষদ নির্বাচনে দলের বিদ্রোহী প্রার্থীদের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেবেন? প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এ নির্বাচনে আমরা দলীয় মনোনয়ন দেইনি। তবে অনেককেই সমর্থন দিয়েছি। এই সমর্থনের বাইরে কেউ যদি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে তাহলে তাদের আমরা নিষেধ করতে পারি না। কারণ নির্বাচন করার অধিকার সবার আছে। তাদের দলীয় প্রার্থিতা প্রত্যাহারের জন্য চাপাচাপি করিনি, তবে অনেককেই অনুরোধ করেছি।

মতামত