টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

জেলা প্রশাসনের সহায়তা: শিশু আদিয়াত সারাক্ষণই খুঁজে বেড়াচ্ছে মাকে

চট্টগ্রাম, ১৯ ডিসেম্বর, সিটিজি টাইমস :: আদিয়াতের বয়স এখনো এক বছরও হয়নি। এই বয়সেই সে একই দিনে হারিয়েছে তার পিতা-মাতা দুজনকেই।

রোববার ভোরে চট্টগ্রাম মহানগরীর বাকলিয়া থানার শাহজিপাড়ার অগ্নিকাণ্ডে দম বন্ধ হয়ে একসঙ্গেই প্রাণ হারিয়েছেন শিশুটির পিতা আহাম্মদ সৈয়দ (৩৬) এবং মা রিনা আক্তার (২৮)। কিন্তু বেঁচে যায় তাদের ফুটফুটে শিশুটি।

পাশের ঘরে যখন আগুন লাগে, সন্তানকে নিয়ে বেরিয়ে এসেছিলেন তারা। তখনই ছেলেকে এক স্বজনের হাতে দিয়েছিলেন মা রিনা; কিন্তু সনদসহ দরকারি কাগজপত্র আনতে আবার ঢুকেছিলেন; তারপর আর বের হতে পারেননি এই দম্পতি, তাদের লাশ বের করে আনেন স্বজনরা।

বাবা-মা হারানো আদিয়াত এখন সৈয়দের ষাটোর্ধ্ব মা নূর বানুর কাছে। দৃষ্টিতে সারাক্ষণই মাকে খুঁজে বেড়াচ্ছে সে। কাঁদছে ‘মা মা’ বলে। আদিয়াতের কান্না থামাতেই হিমশিম খাচ্ছেন স্বজনরা । শিশু আদিয়াতের কান্নায় এলাকার পরিবেশ অনেকটাই ভারী । এলাকার সাধারণ মানুষও অবুঝ আদিয়াতের আকুতি দেখে অশ্রুসজল হচ্ছে।

সৈয়দের ঘরের আশপাশে আরো কয়েকটি ঘরে তার ভাইরা থাকতেন। সৈয়দের বড় ভাই নূর হোসেনের ছেলের বিয়ের আয়োজন ঘিরে উৎসব চলছিল পরিবারে, এখন তাতে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। সৈয়দের বড় ভাই নূর হোসেন, মেজো ভাই মঞ্জুর আলমের পাশাপাশি তাদের প্রতিবেশী এছহাক, জাকির হোসেন, আনোয়ার, সেকান্দারের ঘরও পুড়েছে।

চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক শামসুল আরেফিন বলেন, ‘ঘটনাটি মর্মান্তিক। আমরা খবর জানার পরপরই ঘটনাস্থলে ছুটে যাই। এরপর পিতৃ-মাতৃহারা শিশুটির খোঁজখবর নিয়েছি। শিশুটি বর্তমানে তার নিকটাত্মীয়ের হেফাজতে রয়েছে।’

জেলা প্রশাসক বলেন, ‘অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সাধ্যানুযায়ী সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। পিতৃ-মাতৃহীন আদিয়াতের জন্যও জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত