টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

স্মৃতির বিদ্যাপীঠে দু‘দিনের বাঁধভাঙ্গা উচ্ছ্বাস

মীর মাফুজ আনাম
ফটিকছড়ি থেকে

চট্টগ্রাম,১৮ ডিসেম্বর, সিটিজি টাইমস : দূর-দুরান্ত থেকে হাজার হাজার নবীন-প্রবীণ প্রাণ এসে মিলিত হয়েছে একজায়গায়। আনন্দ-উল্লাশ, হৈ-হুল্লোড়ে মুখরিত হয়ে উঠেছে চারপাশ। দীর্ঘদিনের পুরনো বন্ধুৃকে দেখে হৃদয়ের সবটুকু নির্যাস ভালোবাসা দিয়ে জড়িয়ে ধরছে একে-অপরকে। এ যেন স্মৃতির বিদ্যাপীঠে আনন্দের বাঁধভাঙ্গা উচ্ছ্বাস। দিনভর প্রিয় বিদ্যাপীঠের দেয়াল-সিঁিড়, খেলার মাঠ, পুকুরঘাট, ইট-পাথরের সাথে মিশে থাকা নানা ঘটনা ভেসে উঠছে সবার মানসপটে। খোলা মাঠে স্মৃতির ঝাঁপি খুলে বসে একে-অপরের সেইসব রঙ্গীন দিনগুলির কথা বলতে বলতে মনের অজান্তে অনেকেই কেঁদে উঠছে, মুচছে চোখ। বলছে, বড় আনন্দের ছিলো সেইসব দিনগুলি। আহ!্ আবার যদি পেতাম ফিরে।


বহুদিন পরে প্রিয় শিক্ষককে পেয়ে স্মৃতি করে রাখতে অনেকেই তুলছে ছবি। ছাত্রের প্রোজ্জ্বল, সোহাগমাখা মুখখানি দেখে অনেক শিক্ষককেও আবেগে বিহ্বল হয়ে যেতে দেখা গেছে। নবীন শিক্ষার্থীরা পুরো ক্যাম্পাসজুড়ে ডাক-ঢোল বাজিয়ে জানান দিচ্ছে আমরাই নির্মাণ করবো সুন্দর আগামী। এ ছিল নানুপুর লায়লা-কবির ডিগ্রী কলেজের দু’দিনব্যাপী প্রাক্তন ছাত্রের পুনর্মিলনি ও রজতজয়ন্তী উৎসবের চিত্র।

রজতজয়ন্তী উদযাপন পরিষদ ও প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী পরিষদ আয়োজিত দু’দিন ব্যাপী চলা আলোচনা অনুষ্টানে উপস্থিত ছিলেন দেশ বরেণ্য শিক্ষাবিদ, লেখক, সাংবাদিক, রাজনীতিক, কলেজ প্রতিষ্টাতা, প্রতিষ্টাতা পরিবারের সদস্যসহ সমাজের বিভিন্ন স্তরের মান্যগন্য ব্যাক্তিবর্গ।


অনুষ্টানস্থল থেকে আনুষ্টানিকভাবে বিনম্র শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করা হয়েছে প্রয়াত প্রতিষ্টাদের।

আয়োজক কমিটির অন্যতম ও প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী পরিষদের সভাপতি আশরাফুল ইসলাম বলেন, ‘২৫ বছরের এ রজত জয়ন্তী ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পুনর্মিলনী উৎসবকে সফল করতে বিভিন্নজন বিভিন্ন স্তর থেকে নানাভাবে সহযোগিতা করেছে। আমরা সকলের অংশগ্রহন ও সহযোগিতাকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছি।’

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত