টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

ফটিকছড়িতে স্বর্ণালংকার দিয়ে অভিনব প্রতারণা, আটক ১

মীর মাহফুজ আনাম
ফটিকছড়ি থেকে

চট্টগ্রাম, ১৪  ডিসেম্বর  ২০১৬ (সিটিজি টাইমস):: ফটিকছড়িতে স্বর্ণালংকার দিয়ে অভিনব প্রতারণা করে টাকা হাতিয়ে নিয়ে পালানোর সময় এক মহিলাকে আটক করা হয়েছে। জুয়েলার্সের দোকানে প্রথমে আসল স্বর্ণালংকার দেখিয়ে ২০ হাজার টাকা বন্ধক চায় এক মহিলা। দোকানদার অলংকারটি যাচাই বাছাই করার পর টাকা দেওয়ার আগ মুহুর্তে একই ধরণের নকল স্বর্ণালংকার জমা দিয়ে টাকা হাতিয়ে নেয় মহিলাটি। মহিলাটি চলে যাওয়ার পর পূনরায় স্বর্ণালংকারটি যাচাই করলে নকল স্বর্ণ দেখে রাস্তা থেকে মহিলাটিকে আটক করেন দোকানের মালিক। আজ বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার সুয়াবিল বৈদ্যুরহাট বাজারে কুমকুম জুয়েলার্সে এ প্রতারণার এ ঘটনা ঘটে।

কুমকুম জুয়েলার্সের স্বত্তাধিকারী রতন দে এ প্রতিবেদককে বলেন, মহিলাটি প্রথমে দোকানে এসে পাশ্ববর্তী চৌধুরী বাড়ির মহিলা বলে পরিচয় দেয়। সে প্রথমে আসল স্বর্ণের এক জোড়া চুড়ি দেখিয়ে ২০ হাজার টাকা বন্ধকি নিতে চায়। আমি তা যাচাই করে টাকা প্রদান করার মুহুর্তে আমার অগোচরে একই ডিজাইনের অপর এক জোড়া নকল চুড়ি দিয়ে পাল্টে নেয়। মহিলাটি টাকা নিয়ে চলে যাওয়ার প্রায় দশ মিনিট পর পূনরায় চুড়িগুলো কষ্টি পাথরে যাছাই করতে গেলে নকল স্বর্ণ দেখে ওই মহিলাকে খুঁজেতে থাকি। লোকজনের কাছে জিজ্ঞাস করে মহিলাটি যে সিএনজি গাড়ি করে চলে যাচ্ছিল তার পিছু নিই। এক পর্যায়ে নাজিরহাট নতুন রাস্তার মাথায় এসে গাড়িটি থামলে সেখানে মহিলাটিকে আটক করি; কিন্তু তার কাছে আমার কাছ থেকে নেওয়া ২০ হাজার টাকা ও আসল স্বর্ণের চুড়িগুলো নেই। পরে জানতে পারি, ওই গাড়িতে তার দুই সহযোগী পুরুষ ব্যক্তি ছিল তারা সবকিছু নিয়ে কৌশলে সটকে পড়ে।

মহিলাটিকে স্থানীয় লোকজন নাজিরহাট নতুন রাস্তার মাথায় জিয়াউল হক মাইজভান্ডারী যাত্রী ছাওনীর ভেতর আটক করে পুলিশ প্রশাসনকে খবর দেন।

সরেজমিনে গিয়ে প্রতারক ওই মহিলার সাথে কথা বলে জানা যায়, তার নাম রহিমা বেগম(৩৫), বাবা- কবির আহম্মদ। বাড়ি বান্দরবান জেলাার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় । তবে, থাকে নগরীর কালুরঘাট এলাকায়। তাকে পালিয়ে যাওয়া ওই দুই পুরুষ ব্যক্তি দুই হাজার টাকার বিনিময়ে এই প্রতারণার কাজে ব্যবহার করছে বলে দাবী তার।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত