টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রোনালদোই জিতলেন ব্যালন ডি’অর

চট্টগ্রাম, ১৩  ডিসেম্বর  ২০১৬ (সিটিজি টাইমস): গত বছর দর্শকসারিতে বসেই লিওনেল মেসিকে ফিফা বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার ব্যালন ডি’অর অ্যাওয়ার্ড জিততে দেখেছিলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। এক বছর পর মেসিকে দর্শক বানিয়েই ফুটবলের ব্যক্তিগত সম্মানজনক অ্যাওয়ার্ডটি জয় করে নিলেন রিয়াল মাদ্রিদ ও পর্তুগালের তারকা খেলোয়াড়। অবশ্য সশরীরে পুরস্কার নিতে পারেননি রোনালদো। ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপে অংশ নিতে জাপানে থাকায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন না তিনি।

ফিফা বর্ষসেরা খেলোয়াড় ও ব্যালন ডি’অর পৃথক হয়ে যাওয়ায় এবার ৩০ জনের সংক্ষিপ্ত তালিকা থেকে সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত করে ফ্রান্স ফুটবল ম্যাগাজিন। মেসি, নেইমার, লুইস সুয়ারেজ ও আন্তনিও গ্রিজম্যানের মতো তারকা খেলোয়াড়দের হটিয়ে ব্যালন ডি’অর জিতে নেন রোনালদো।

২০০৮, ২০১৩ ও ২০১৪ সালের পর এবার চতুর্থবারের মতো ব্যালন ডি’অর জিতলেন রোনালদো। ২০০৯, ২০১১, ২০১১, ২০১২ ও ২০১৫ সালে পাঁচবার ব্যালন ডি’অর জেতা মেসির চেয়ে মাত্র এক কদম পিছিয়ে রয়েছেন পর্তুগিজ সুপারস্টার।

চলতি বছরের মে মাসে রিয়াল মাদ্রিদকে প্রায় একক নৈপুণ্যে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জিতিয়েছিলেন রোনালদো। দুই মাস যেতে না যেতেই পর্তুগাল জাতীয় দলকে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা এনে দেন। এই মূল্যবান দুটি ট্রফি জেতায় রোনালদোই যে এবার ব্যালন ডি’অর জিতবেন সেটি অনেকটাই অনুমিত ছিল। সোমবার আসলো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা।

রিয়ালকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতানোর পথে ১৬টি গোল করেন রোনালদো। গত মৌসুমে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুর ক্লাবটির হয়ে সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৫১ গোল করেন এই পর্তুগিজ সুপারস্টার। অন্যদিকে পর্তুগালকে ইউরো জেতানোর পথে তিনটি গোল করেন সিআর সেভেন।

গত মৌসুমে ইনজুরির কারণে উল্লেখযোগ্য সময় মাঠের বাইরে ছিলেন লিওনেল মেসি। তবে তারপরও সময়টা একেবারেই মন্দ যায়নি আর্জেন্টাইন সুপারস্টারের। বার্সেলোনাকে স্প্যানিশ লা লিগা ও কোপা ডেল রের শিরোপা জেতানোর পথে ৪৯ ম্যাচে ৪১ গোল করেন মেসি। অন্যদিকে আর্জেন্টিনাকে প্রায় একক নৈপুণ্য কোপা আমেরিকার শতবর্ষী টুর্নামেন্টের ফাইনালে তোলেন কিং লিও।

নেইমার ও সুয়ারেজ বার্সেলোনায় মেসির সতীর্থ ছিলেন। জাতীয় দলের হয়ে সুয়ারেজের কোনো সাফল্য না থাকলেও নেইমার গত আগস্টে ঘরের মাঠে ব্রাজিলকে অলিম্পিকের শিরোপা জেতান।

অন্যদিকে গ্রিজম্যান অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে তোলেন। ফ্রান্সকে ফাইনালে তোলার পথে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ ৬টি গোল করে গোল্ডেন বল ও গোল্ডেন বুটের অ্যাওয়ার্ড জয় করেন গ্রিজম্যান।

ফ্রান্স ফুটবল ও ফিফার সঙ্গে চুক্তি শেষ হওয়ায় ব্যালন ডি’অর পুরস্কার আর ফিফার হাতে নেই। তবে আন্তর্জাতিক ফুটবলের সর্বোচ্চ এই সংস্থাটি আলাদাভাবে বর্ষসেরা ফুটবলারের নাম ঘোষণা করবে। আগামী বছরের ১১ জানুয়ারি জমকালো অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের নাম প্রকাশ করবে ফিফা। সংক্ষিপ্ত তিনজনের তালিকায় মেসি, রোনালদো ও গ্রিজম্যান রয়েছেন।

ব্যালন ডি’অরের সংক্ষিপ্ত ৩০ জনের তালিকা:

বার্সেলোনা: লিওনেল মেসি, নেইমার, সুয়ারেজ, ইনিয়েস্তা।

রিয়াল মাদ্রিদ: ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, গ্যারেথ বেল, লুকা মডরিচ, টনি ক্রুস, পেপে, সার্জিও রামোস।

বায়ার্ন মিউনিখ: থমাস মুলার, রবার্ট লেভানডভোস্কি, আর্তুরো ভিদাল, ম্যানুয়েল নয়ার।।

ম্যানচেস্টার সিটি: সার্জিও আগুয়েরো, কেভিন ডি ব্রুইন।

বরুসিয়া ডর্টমুন্ড: পিয়েরে-এমেরিক আবামেয়াং।

জুভেন্টাস: জিয়ানলুইজি বুফন, পাওলো দিবালা, গঞ্জালো হিগুয়েন।

অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ: ডিয়েগো গডিন, কোকে, আন্তনিও গ্রিজম্যান।

লেস্টার সিটি: জেমি ভার্ডি, রিয়াদ মাহরেজ, দিমিত্রি পায়েট।

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড: পল পগবা, জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ।

স্পোর্টিং: রুই প্যাট্রিস।

টটেনহ্যাম: হুগো লরিস।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত