টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রোহিঙ্গা বোঝাই ৯টি নৌকা ফেরত ও ৬ জনকে পুশব্যাক

আমান উল্লাহ আমান
টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম, ০৮  ডিসেম্বর  ২০১৬ (সিটিজি টাইমস):  টেকনাফ ও উখিয়া সীমান্ত দিয়ে অনুপ্রবেশের চেষ্টাকালে রোহিঙ্গা বোঝাই ৯টি নৌকা ও ৬ জন রোহিঙ্গাকে মিয়ানমারে ফেরত পাঠিয়েছে বিজিবি। ৮ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার ভোরে টেকনাফের নাফ নদীর ৩টি পয়েন্ট ও উখিয়ার পালংখালী সীমান্ত দিয়ে এসব রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের চেষ্টা চালিয়েছিল।

বিজিবি তা প্রতিহত করে টেকনাফের নাফ নদীর ৩টি পয়েন্ট দিয়ে রোহিঙ্গা বোঝাই ৯টি নৌকাকে মিয়ানমারের দিকে ফেরত পাঠায়। প্রতিটি নৌকাতে ১০ থেকে ১৫ জন করে রোহিঙ্গা ছিল।

এছাড়া সীমান্তের উখিয়ার পালংখালী সীমান্ত অতিক্রম করে অনুপ্রবেশ করতে চাওয়া ৬ জন রোহিঙ্গাকে ফেরত পাঠানো হয়।

এদিকে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সহিংস ঘটনা ও নির্যাতনের শিকার হয়ে রাখাইন রাজ্য থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের ২৩০টি রোহিঙ্গা বোঝাই নৌকা মিয়ানমারে ফেরত পাঠিয়েছে।

টেকনাফ ২ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আবুজার আল জাহিদ বলেন, গত ১ নভেম্বর থেকে বুধবার ৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত টেকনাফের আনোয়ার মৎস্য খামার, ২ নম্বর স্লইসগেট, ৬ নম্বর স্লইসগেট , ৭ নম্বর স্লইসগেট, লম্বাবিল, তুলাতলি, লম্বাবিল হাউসের দিয়া, কাটাখালী, উলুবনিয়া, ঝিমংখালী, ওয়াব্রাং, লেদা, মোচনি, দমদমিয়া সীমান্ত পয়েন্ট দিয়ে ২৩০টি নৌকায় ২ হাজার ২৫০ জন রোহিঙ্গাকে প্রতিহত করা হয়েছে। এসময়ে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশে সহায়তার দায়ে ১৩ জন দালালকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হলে তাদের ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেওয়া হয়েছে।

অপরদিকে সীমান্তে বিজিবি টহল জোরদার থাকলেও ইতিমধ্যে প্রায় ৩০ হাজার রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ করে দেশের বিভিন্ন স্থানে আশ্রয় নিয়েছে বলে বিভিন্ন সুত্রে প্রকাশ হয়েছে। তম্মধ্যে নয়াপাড়া শরনার্থী ক্যাম্প, লেদা অনিবন্ধিত রোহিঙ্গা টাল, কুতুপাল শরনার্থী ও অনিবন্ধিত রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বেশীর ভাগ রোহিঙ্গা আশ্রয় নিয়েছে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত